চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিনাধান চাষে শস্য নিবিড়তা বৃদ্ধির অপার সম্ভাবনা

প্রকাশিত : নভেম্বর ১, ২০২২ , ৭:১৫ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট (বিনা) উদ্ভাবিত স্বল্প জীবনকাল, উচ্চ-ফলনশীল বিনাধান-১৬, ১৭ ও ২২ এর চাষাবাদ ও সম্প্রসারণের লক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার সগুনা গ্রামে মঙ্গলবার বিকালে শস্য-কর্তন ও মাঠ-দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন পরমাণু কৃষি বিজ্ঞানী ও বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট (বিনা) এর সুযোগ্য মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম। বিনা উপকেন্দ্র, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ড. হাসানুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালী সংযুক্ত ছিলেন ড. মো. মুনজুরুল ইসলাম, মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (গবেষণা সমন্বয়ক) বিনা, ময়মনসিংহ। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার উপপরিচালক ড. পলাশ সরকার, এসআরডিআ,ই চাঁপাইনবাবগঞ্জের এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. নুরুল ইসলাম ও নাচোল উপজেলার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. বুলবুল আহমেদ। বিনা উপকেন্দ্র, চাঁপাইনবাবগঞ্জের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মোঃ জুবায়ের আল ইসলাম এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি সঞ্চালিত হয়। শস্য-কর্তন ও মাঠ-দিবস অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, দেশের খাদ্য স্বয়ং সম্পূর্ণতা বৃদ্ধি করার লক্ষে বিনা উদ্ভাবিত স্বল্প-জীবনকাল বিনাধান-১৬, জীবনকাল ১০১ দিনে বিঘায় ২১মণ,১৭ জীবনকাল ১১২দিনে ২৬ মণ ও ২২ জীবনকাল ১১৬ দিনে ২৭মণ। এত বেশী ফলন হওয়ায় অত্র এলাকায় কৃষকের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। বক্তারা আরও বলেন শস্য নিবিড়তা বৃদ্ধি করার লক্ষে অর্থাৎ বছরে জমিতে একাধিক ফসল চাষাবাদ করার জন্য বিনা উদ্ভাবিত জাতসমুহের কোন বিকল্প নেই।