ময়মনসিংহে সরিষার বাম্পার ফলনের আশাবাদ

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২, ২০২৩ , ৬:২৩ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহ ব্যুরো, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ময়মনসিংহে এবার গেলবারের প্রায় দ্বিগুণ জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। গত বছর জেলায় ৫ হাজার ২৪৬ হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদ করা হলেও এবার সেই আবাদ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ২০৫ হেক্টর জমিতে। কম খরচে বেশি লাভ হওয়ায় কৃষকরা সরিষা আবাদে ঝুঁকেছেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কৃষক ও কৃষিবিদরা। জেলার সদর উপজেলার বোরোরচর গ্রামের কৃষক শামসুল হক এবার ৩০ শতক জমিতে বারি ১৪ জাতের সরিষা আবাদ করেছেন। গত বছর ২০ শতক জমিতে সরিষা আবাদ করে ২০ হাজার টাকা মুনাফা পেয়েছিলেন। কম খরচে বেশি লাভ হওয়ায় এবার জমির পরিমাণ বাড়িয়ে ৩০ শতকে সরিষা আবাদ করেছেন। নভেম্বর মাসের শুরুতে আমন ধান কাটার পরপরই তিনি সরিষা বপণ করেন। এখন তার ক্ষেত-জুড়ে হলুদের সমারোহ। এবারও ভালো ফলনের আশা করে কৃষক শামসুল হক বলেন, ‘সরিষা গাছে হলুদ ফুল ধরেছে। জানুয়ারির শেষ দিকে কিংবা ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সরিষা তোলা যাবে। সরিষা মাড়াই শেষে বোরো ধান আবাদ করবো। যেভাবে ফলন হয়েছে তাতে এবার ৩০ হাজার টাকা লাভ হবে বলে আশা করছি।’ শুধু শামসুল হক নন, জেলার অনেক কৃষক এবার সরিষা আবাদ করেছেন। সদরের গোপালনগর গ্রামের তালেব উদ্দিন জানান, সরিষার তেলের চাহিদা ও দাম বেড়ে যাওয়ায় সরিষা আবাদ করেছেন। এবার যে ফলন দেখা যাচ্ছে তাতে লাভবান হবেন বলে জানান তিনি। ময়মনসিংহ কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মতিউজ্জামান বলেন,‘কম খরচে বেশি লাভ হওয়ায় এবং ভোজ্য-তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় দ্বিগুণ জমিতে কৃষকরা সরিষা আবাদ করেছেন।’ তিনি বলেন, ‘ভোজ্য-তেলের আমদানি নির্ভরতা কমাতে সরিষা আবাদে কৃষকদের উৎসাহিত করেছি। জেলার ৩৯ হাজার ৫০০ কৃষককে প্রণোদনা হিসেবে এক কেজি করে সরিষা বীজ দেওয়া হয়েছে। কৃষকরা বারি ১৪, বিনা-৪, ১৫ ও ১৭ জাতের সরিষা আবাদ করেছেন। এবার ফলন ভালো হয়েছে। আগামীতে কৃষকরা আরও বেশি জমিতে সরিষা আবাদ করবেন বলে আমরা আশাবাদী।’