পার্বত্য অঞ্চলের শিল্প সম্ভাবনা গণমাধ্যমে তুলে ধরতে হবে

প্রকাশিত : মে ৩০, ২০২২ , ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

রাঙ্গামাটি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:রাঙামাটিতে তথ্য অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আয়োজিত সঞ্জীবনী প্রশিক্ষণে পার্বত্য অঞ্চলের শিল্প সম্ভাবনা গণমাধ্যমে তুলে ধরার পরামর্শ দিয়েছেন বক্তাগণ। তথ্য অধিদফতরের সিনিয়র উপপ্রধান তথ্য অফিসার মোঃ আবদুল জলিল অনুষ্ঠানে কোর্স সমনয়ক হিসেবে বক্তৃতা করেন। তিনি বলেন, তথ্য অধিদফতর গণমাধ্যম ও সরকারের মধ্যে সেতুবন্ধনের দায়িত্ব পালন করছে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অর্থনৈতিক সম্ভাবনাগুলোকে গণমাধ্যমে তুলে ধরে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার মাধ্যমে সরকারের চলমান উন্নয়নের অভিযাত্রা এগিয়ে নিতে হবে। এ লক্ষ্যে তিনি পার্বত্য এলাকার শিল্প সম্ভাবনা ও সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের ওপর ফিচার ও নিবন্ধ লেখার পাশাপাশি প্রচার কার্যক্রম জোরদার করতে তথ্য অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানান।আঞ্চলিক জনসংখ্যা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটউট রাঙামাটি এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাঙামাটি পার্বত্য জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মামুন। আঞ্চলিক জনসংখ্যা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটউট রাঙামাটির অধ্যক্ষ মো. ওবায়দুর রহমান সরদার এবং প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে তথ্য অধিদফতরের কর্মচারী মোঃ আবদুর রশিদ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বলেন, পার্বত্য জেলা রাঙামাটি অনন্য সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ধারণ করে। এ জেলায় বসবাসরত বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীর নিজস্ব ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রয়েছে। বাংলাদেশের সমতল ভূমির চেয়ে রাঙামাটির প্রাকৃতিক সৌন্দর্য যেমন ভিন্ন, এখানের ভূপ্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্যও আলাদা। তিনি বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর রাঙ্গামাটি জেলায় স্থানীয় সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে ইকোটুরিজম কার্যক্রম প্রসারের সুযোগ রয়েছে। পাঁচ দিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারীরা রাঙ্গামাটি এবং খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার প্রাকৃতিক, শিল্প, সংস্কৃতি ও নৃতাত্ত্বিক সম্ভাবনা সরজমিনে প্রত্যক্ষ করবেন। পাশাপাশি নিজ দপ্তরে সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে সিটিজেন চার্টার অনুসরণ এবং সর্বশেষ আইন ও বিধি-বিধান সম্পর্কে ধারণা নেবেন। এর ফলে তথ্য অধিদফতরের সেবাদান প্রক্রিয়া সহজ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, সঞ্জীবনী প্রশিক্ষণ কোর্সে তথ্য অধিদফতরের ৩০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশগ্রহণ করছেন।