বিরামপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত : জুলাই ২১, ২০২২ , ২:৩০ পূর্বাহ্ণ

মোঃ জাহিনুর ইসলাম, বিরামপুর প্রতিনিধি, দিনাজপুর, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার ৪ নং দিওড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক মন্ডল কর্তৃক প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে হত-দরিদ্রদের জন্য ভিজিএফ এর ১০ কেজি চাল বিতরণে দুর্নীতি, অনিয়ম ও ৫০ বস্তা চাল আত্মসাতের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে অত্র ইউনিয়ন-বাসী। বুধবার (২০ জুলাই) বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদের প্রবেশ পথে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের দু’পাশে বিভিন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন হাতে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মানববন্ধন শেষে ইউনিয়ন-বাসী ও ইউপি সদস্যদের পক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকারের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান, আনোয়ারুল ইসলাম ও ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি গোলাম রব্বানী মাস্টার। ইউপি সদস্যদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর উপহার দেওয়া ঈদ-উল আযহার ভিজিএফ চাল চুরি ও বয়স্ক, বিধবা, মাতৃত্ব-কালীন ভাতা, ভূমিহীনদের মাঝে ঘর বরাদ্দের অনিয়ম ও উৎকোচ স্বরূপ টাকা গ্রহণ ও আত্মসাৎসহ দুর্নীতিবাজ মাদক সেবনকারী, নারীলোভী, অর্থলুন্ঠনকারী ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আমরা ওয়ার্ড সদস্য ও ইউনিয়ন-বাসী যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ ও অপসারণের দাবী জানাচ্ছি। অভিযোগের বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক মন্ডল মুঠো ফোনে সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, চক্রান্তকারীরা আমাকে হেয়-প্রতিপন্ন করতে উঠে পড়ে লেগেছে। উল্লেখ্য যে, গত শুক্রবার (৮ জুলাই) রাতে স্থানীয় জনসাধারণ ও চাল বঞ্চিত বিক্ষুব্ধ জনসাধারণ দিওড় ইউনিয়ন পরিষদ ঘিরে রেখে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ফোনে অভিযোগ করে বলেন, দিওড় ইউনিয়ন পরিষদে অনেক চাল লুকিয়ে রাখা হয়েছে। আমরা চাল পাইনি, চালগুলো রাতে পাচার করা হবে। এমনটা সংবাদ পেয়ে ইউএনও পরিমল কুমার সরকার থানা পুলিশসহ দিওড় ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হয়ে ইউনিয়ন পরিষদে রক্ষিত ৫৭ বস্তা চাল জব্দ দেখিয়ে সভাকক্ষের ঘরটি সিলগালা করেন। এরপর ওই ইউনিয়নের ৯ জন ইউপি সদস্য ইউএনও বরাবর অভিযোগ ও জেলা প্রশাসকের নিকট অনাস্থা প্রস্তাব করেন।