চুয়াডাঙ্গায় সাপের কামড়ে দুই ছাত্রের মৃত্যু

প্রকাশিত : আগস্ট ১, ২০২২ , ২:৪৬ অপরাহ্ণ

সনজিত কর্মকার, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: জেলার দামুড়হুদা উপজেলার চন্দ্রবাস গ্রামে সাপের কামড়ে ২ আবাসিক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল পৌনে ৮ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের দু’জনের মৃত্যু হয়। নিহতরা হলেন, দামুড়হুদা উপজেলার নাটুদহ ইউনিয়নের চন্দ্রবাস ডাক্তার পাড়ার সাইফুল ইসলামের ছেলে আব্দুল্লাহ (১৩) এবং একই গ্রামের মাঝের পাড়ার শওকত আলীর ছেলে জুনায়েদ (১৩)। তারা দু’জনেই চন্দ্রবাস দারুল উলুম কওমি মাদ্রাসার নাজেরা বিভাগের ছাত্র ছিল এবং সেখানে আবাসিকে থেকে লেখাপড়া করতো। মাদ্রাসার শিক্ষক কুতুব উদ্দিন জানান, সোমবার ভোর ৪ টার দিকে যখন বাইরে বের হই, তখন দেখি আব্দুল্লাহ ও জুনায়েদ বমি করছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করলে তারা বলে কিছুতে কামড় দিয়েছে। তাই বমি হচ্ছে। এসময় দেখি আব্দুল্লাহর ডান পায়ে এবং জুনায়েদের বাম হাতে কামড়ের চিহ্ন। আমার সন্দেহ হলে মাদ্রাসার অন্যান্য শিক্ষকদের সহযোগিতায় তাদেরকে প্রথমে গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছে নিই। ওই গ্রাম্য চিকিৎসক তাদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। তাদের দু’জনকে সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করি। মাদ্রাসার পরিচালক হাজী আক্তার ফারুক বলেন, মাদ্রাসার বোর্ডিঙয়ে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় তাদের দু’জনকে সাপে দংশন করেছে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আব্দুল কাদের বলেন, সকাল ৭ টার দিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় দুই মাদ্রাসা ছাত্রকে জরুরী বিভাগে নেয়া হয়। তাদেরকে সাপে দংশন করেছে বলে পরিবারের লোকজন জানান। আমরা তাদের হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দিই। তাদের শরীরে অ্যান্টিস্নেকভেনম ইনজেকশন দেয়া হচ্ছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল পৌনে ৮ টার দিকে মারা যায় ওই দুই ছাত্র। দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফেরদৌস ওয়াহেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।