হামলায় জড়িত এ্যাম্বুলেন্স চালকসহ জড়িতদের গ্রেফতার দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশিত : অক্টোবর ২৭, ২০২২ , ৫:০৭ অপরাহ্ণ

মশাহিদ আহমদ, নিজস্ব প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: মৌলভীবাজারে এ্যাম্বুলেন্সের ভেতর রোগীর মৃত্যুর পর পৈশাচিক হামলায় জড়িত এ্যাম্বুলেন্স চালকসহ জড়িত সিন্ডিকেট চক্রকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে শহরের চৌমুহনা চত্বরে সচেতন এলাকাবাসী ও শোকাহত পরিবার এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। বক্তারা পৈশাচিক এ হামলায় জড়িত এ্যাম্বুলেন্স চালক সাদিক, খালেদসহ জড়িত সিন্ডিকেট চক্রকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে বলেন, গত ২৫ অক্টোবর সকালে কমলগঞ্জ উপজেলার কালেঙ্গা গ্রামের কামাল উদ্দিন হঠাৎ শ্বাসকষ্ট জনিত কারণে অসুস্থতা-বোধ করায় তাৎক্ষণিক চিকিৎসার জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন তার ছেলে শিপু, শাহজাহান ও রাজিব। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে অক্সিজেন সহকারে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার এক পর্যায়ে সাদিক মিয়ার এ্যাম্বুলেন্স ঠিক করা হয়। এ্যাম্বুলেন্সে রোগী তুলার পূর্বে এ্যাম্বুলেন্সে অক্সিজেন আছে কিনা জিজ্ঞাসা করলে ড্রাইভার অক্সিজেন আছে মর্মে জানান। শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিলে সে জানায় তার এ্যাম্বুলেন্সে অক্সিজেন নেই। পরে অক্সিজেনের অভাবেই গাড়ির ভিতরেই কামাল উদ্দিন মারা যান। এনিয়ে মৃত ব্যক্তির ছেলেদের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সাদিক মিয়া ও খালেদ মিয়াসহ আরো অজ্ঞাতনামা ৪/৫জন মিলে মৃত কামাল আহমদ এর ছেলেদের বেধড়ক পেটায় এবং রক্তাক্ত জখম করে। তাদের চিৎকার শুনে স্থানীরা মৃত বাবার পাশ থেকে আহত ছেলেদের উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করান। বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশন এর সাবেক পরিচালক ও বিআরডিবি কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল হক ফজলু এর সভাপতিত্বে ২ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষে সজীব আহমেদ সিপু, ৭নং চাঁদনীঘাট ইউপি চেয়ারম্যান আখতার উদ্দিন, কবি ও লেখক মুহিদুর রহমান, সি,পি,এ,এম, মৌলভীবাজার এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সোহেল আহমদ, আওয়ামী যুবলীগ জেলা শাখার সাবেক সহ-সম্পাদক সাদমান সাকিব চৌধুরী, সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক তুষার আহমদ প্রমুখ। পৈশাচিক হামলায় জড়িত এ্যাম্বুলেন্স চালক সাদিক মিয়া ও খালেদ মিয়াসহ জড়িত সিন্ডিকেট চক্রকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন সচেতন নাগরিকবৃন্দ।