ঝিনাইদহে পুরস্কার পেলেন দশ সংগ্রামী নারী

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৯, ২০২২ , ৬:৪৫ অপরাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসী, নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: “জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ” শীর্ষক কর্মসূচি ২০২১-২০২২ এ নারী জাগরণের অগ্রদূত মহীয়সী বেগম রোকেয়া দিবসে রোকেয়ার কর্ম ও আদর্শ সামনে রেখে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীদের অনন্য অর্জনের জন্য জেলা ও উপজেলা থেকে পাঁচজন করে মোট দশজন সংগ্রামী নারীকে শ্রেষ্ঠ জয়িতার পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, ঝিনাইদহ এর আয়োজনে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় এ পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখেছেন যে নারী’ ক্যাটাগরিতে ঝিনাইদহ জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ জয়িতার পুরস্কার পেয়েছেন জাতীয় মহিলা সংস্থা ঝিনাইদহ জেলা শাখার চেয়ারম্যান, হরিণাকুন্ডুর কৃতি-সন্তান জেলা নারী সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও ঝিনাইদহ জেলা মহিলা শ্রমিক-লীগের সভাপতি নারী নেত্রী দীপ্তি রহমান। শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক অনুষ্ঠানে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিশেষ অবদানের জন্য মোট দশ নারীর হাতে পদক তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও জেলা প্রশাসক মনিরা বেগম। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ সেলিম রেজা পিএএ, এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মোঃ ইয়ারুল ইসলাম,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি)রথীন্দ্র নাথ রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) রাজীবুল ইসলাম খান। এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন,ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.রায়হান,অ্যাড.সালমা ইয়াসমিন, শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা,মহিলা কমিশনার ফারহানা রেজা আনজু,মহিলা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা,জাতীয় মহিলা সংস্থার কর্মকর্তা, ঝিনাইদহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, উইমেনস ক্লাবের সভাপতি, সিও এনজিওর কর্মকর্তাসহ সকল পর্যায়ের নারী নেত্রী-গন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর,ঝিনাইদহ এর উপপরিচালক নিলুফার ইয়াসমিন। শ্রেষ্ঠ জয়িতার পুরস্কার পেলেন জাতীয় মহিলা সংস্থা ঝিনাইদহ জেলা শাখার চেয়ারম্যান দীপ্তি রহমানসহ দশ সংগ্রামী নারী। শ্রেষ্ঠ জয়িতা হিসেবে এ বছর নির্বাচিত হয়েছেন ঝিনাইদহ জেলা পর্যায়ে পাচঁজন এবং উপজেলা পর্যায়ে পাচঁজন করে মোট দশজন আত্মপ্রত্যয়ী এবং সংগ্রামী নারী। ঝিনাইদহ জেলা ও উপজেলার সম্মাননা প্রাপ্ত নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ পাঁচ ও পাঁচ দশজন জয়িতা হলেন-সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখেছেন যে নারী ক্যাটাগরিতে ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুন্ডু উপজেলার ভায়না গ্রামের রুহুল কুদ্দুস ও রহিমা কুদ্দুসের কন্যা ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু’র বড় বোন দীপ্তি রহমান এবং সদর উপজেলার আলেয়া বেগম,অর্থনৈতিক ভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী ক্যাটাগরিতে সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়নের আম্বিয়া খাতুন লাকী,সফল জননী নারী ক্যাটাগরিতে কোটচাঁদপুর উপজেলার তালসা গ্রামের আমিনুর নাহার,শিক্ষা ও চাকুরীর ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী শৈলকুপা উপজেলার ১০নং বগুড়া ইউনিয়নের জেসমীন নাহার কামনা ও দুলিনা খাতুন,নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন যে নারী মোছা: নাজমা খাতুন ও ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মুক্তা আক্তার সাগরী। প্রধান অতিথি ও জেলা প্রশাসক জেলার নির্বাচিত জয়িতার হাতে সম্মাননা স্মারক, নগদ অর্থ ও সনদ তুলে দেন। প্রধান অতিথি ও জেলা প্রশাসক মনিরা বেগম বলেন, বাংলাদেশে আজ নারীরা প্রশাসন, বিচার বিভাগ, সশস্ত্র বাহিনী, স্বাস্থ্য-শিক্ষাসহ সব ক্ষেত্রে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছে। গত একযুগে এদেশে নারী উদ্যোক্তাদের অভাবনীয় বিকাশ হয়েছে। এসবই সম্ভব হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের নারী উন্নয়নে গৃহীত বিভিন্ন বাস্তবভিত্তিক কর্মপরিকল্পনার জন্য।