নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে পাকা রাস্তার বেহাল দশা

প্রকাশিত : জুলাই ১৭, ২০২২ , ৮:৫২ অপরাহ্ণ

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: শ্রীমঙ্গলে অবৈধভাবে মেশিন লাগিয়ে বালু উত্তোলন করায় মতিগঞ্জ এলাকা থেকে হাইল হাওরে যাওয়ার জন্য জনসাধারণ এর চলাচলের রাস্তার বেহাল দশা। হুমকির মুখে রয়েছে বাড়ী-ঘর। সম্প্রতি একটি দৈনিক পত্রিকায় নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের সংবাদটি মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক এর নজরে আসলে তার নির্দেশে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার ভূমির অভিযানে তাদেরকে একাধিকবার অর্থদণ্ড প্রদান ও জব্দকৃত মালামাল প্রকাশ্য নিলামের মাধ্যমে তা আদায় করা হয়। কিন্তু কোনভাবেই অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ করা যাচ্ছেনা। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ায় এলাকাবাসী জানান, উপজেলার অলিপুর গ্রামের অমর আলীর পুত্র হান্নান মিয়া ও মায়া মিয়ার পুত্র হায়দর মিয়ার নেতৃত্বে নদীর একাধিক স্থানে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করছেন। বিশেষ করে এ চক্রটি বালু উত্তোলন এর জন্য রাতের আধারে সরকারী বন্ধের দিন (শুক্র ও শনিবার) টার্গেট করে। মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে ট্রাক ভর্তি করে অন্যত্র সরিয়ে নেয়। এতে কতিপয় অর্থলোভী লাভবান হলেও হুমকির মুখে নদীর তীর এলাকার বাসিন্দারা। ব্যাপকভাবে সড়ক ও ঘর-বাড়ীতে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে । আশপাশের আবাদি জমি ও বসতবাড়ি হুমকির মুখে পড়েছে। অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় বিপুল পরিমাণ রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। প্রশাসন এর পক্ষ থেকে একাধিকবার অর্থদণ্ড প্রদান ও জব্দকৃত মালামাল প্রকাশ্য নিলামের মাধ্যমে আদায় করা হলেও কিছুদিন পর ফের বালু উত্তোলন শুরু হওয়ায় জনমনে প্রশ্ন উঠেছে, এসব অর্থলোভীদের খুঁটির জোর কোথায়।