শৈলকূপায় দুই ইউপি সদস্যের সমর্থকদের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত

প্রকাশিত : আগস্ট ২৫, ২০২২ , ৯:১৭ অপরাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসী, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ঝিনাইদহের শৈলকূপায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যের সমর্থকদের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) সকালে উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের গোয়ালবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে সময় উভয়পক্ষের অন্তত ২টি বাড়ি ও একটি দোকান ভাঙচুর করা হয়। আহতদের মধ্যে সাতজন শৈলকূপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। আহতদের মধ্যে ইমরান, মইন, সুজাত, সোহাগ, টুটুলসহ ৭ জনকে শৈলকূপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের গোয়ালবাড়ি গ্রামে বর্তমান ইউপি সদস্য টুলু ও সাবেক সদস্য দাউদ বিশ্বাসের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই জেরে উভয় গ্রুপের সমর্থকরা সকালে গোয়ালবাড়িয়া গ্রামে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন। সেসময় ২টি বাড়ি ও একটি দোকান ভাঙচুর করা হয়। শৈলকূপা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই জনকে আটক করা হয়েছে। তবে এখনও কোনও পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অপর এক ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ডাকবাংলা ত্রিমোহনী বাজারে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।বুধবার শেষ বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকালে সদর উপজেলার ডাকবাংলা বাজারে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে সমাবেশের ডাক দেয় বিএনপি। এরই অংশ হিসাবে ত্রিমোহনী বাজার হয়ে মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা সমাবেশ স্থলে আসার সময় তাদের বাধা দেয় আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা। সেসময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে এক জনকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ও বাকিদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখনও এ-ঘটনায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।