গফরগাঁওয়ে গৃহবধূকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১০, ২০২২ , ২:৫১ পূর্বাহ্ণ

ময়মনসিংহ ব্যুরো, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে রাতে প্রকৃতির ডাকে ঘর হতে বের হলে জোর করে নিজ বাড়িতে তুলে নিয়ে গৃহবধূ (১৮)কে ধর্ষণের অভিযোগে মোঃ ইব্রাহিমকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূর নানা। আর ঘটনার সময় ধর্ষকের পরিবার ওই গৃহবধূকে মারধর ও মামলা না করতে হুমকি দেয়। তবে ধর্ষক ইব্রাহিম এখনো গ্রেফতার হয়নি। বৃহস্পতিবার (০৮ সেপ্টেম্বর) রাতে গফরগাঁও থানায় দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চরআলগী নয়াপাড়া গ্রামের নির্যাতিতা ওই গৃহবধূ বাবা-মা হারা এতিম। তিনি নয়াপাড়া গ্রামে নানার বাড়িতে বসবাস করতেন। এই নারী যখন স্কুলে পড়তেন, তখন থেকেই স্কুলে যাওয়া আসার পথে প্রতিবেশী শফিক মিয়ার বখাটে ছেলে ইব্রাহিম নানাভাবে উত্ত্যক্তের পাশাপাশি কু-প্রস্তাব দিতেন। উপায়ান্তর না পেয়ে নির্যাতিতার নানা পড়াশোনা শেষ হওয়ার আগেই তার নাতনিকে গফরগাঁও পৌরশহরের ৬ নং ওয়ার্ড ষোলহাসিয়া এলাকায় বিয়ে দিয়ে দেন। কিন্তু বিয়ের পরেও বখাটে ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়ির আশেপাশে গিয়ে তাকে উত্ত্যক্ত করার চেষ্টা করতেন। এ নিয়ে ওই গৃহবধূর সংসারে অশান্তি তৈরি হলে ওই নারী তার নানার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। বুধবার (০৭ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে প্রকৃতির ডাকে ঘরের বাইরে বের হতেই বখাটে ইব্রাহিম ও তার সহযোগীরা ওই গৃহবধূকে অপহরণ করে ইব্রাহিমের বাড়িতে নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। বিষয়টি জানাজানি হলে বখাটে ইব্রাহিমের পরিবারের লোকজন ধর্ষিতাকে মারধর করে ও তার নানাকে খবর দিয়ে নিয়ে থানায় মামলা না করার হুমকি দেয়। গফরগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ফারুক আহম্মেদ বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতারে কাজ করছে পুলিশ।