ঝিনাইদহে রিক্সার উপর চলন্ত ট্রাক: পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী ও বোনের পা বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত : অক্টোবর ১৯, ২০২২ , ২:১৫ পূর্বাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসী, নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: রিক্সার উপর চলন্ত ট্রাক উঠে দুই নারীর পা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ঘটনায় রিক্সা চালকের একটি পা ভেঙ্গে গেছে। সোমবার রাতে ঝিনাইদহ শহরের উজির আলী স্কুলের সামনে মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনজনকে মুমুর্ষ অবস্থায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, গোপালগঞ্জের গোপিনাথপুর গ্রামের কাজী ইমরানের স্ত্রী সুরভী খাতুন (৩৫), ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার শংকরহুদা গ্রামের জুয়েলের স্ত্রী ও এসআই ইমরানের বোন তাম্মি খাতুন (২৬) ও রিক্সা চালক সদর উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের ছেলে রাব্বি ইসলাম (১৮)। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, পর্যটন পুলিশের এসআই কাজী ইমরানের স্ত্রী ও বোন বিকালে ঘুরতে বের হন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে তারা রিক্সা যোগে ঝিনাইদহ শহরের মডার্নমোড় এলাকার বাসায় ফিরছিলেন। রিক্সাটি উজির আলী স্কুলের পাশে পৌছালে মাগুরা থেকে ঝিনাইদহ-গামী একটি ট্রাকের নিচে পড়ে। এ সময় দুই নারী ও রিক্সা চালক পিষ্ট হয়। প্রত্যক্ষদর্শী মুন্সি শামিম আহম্মেদ জানান, পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী সুরভী খাতুনের একটি বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে রাস্তার উপর পড়ে ছিল। এবং বোনের পা ক্ষত বিক্ষত হয়ে পায়ের মাংস রাস্তায় ছিটিয়ে পড়ে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। ট্রাক ড্রাইভারকে মারধর করে জনতা পুলিশে সোপর্দ করেছে। জানা গেছে পর্যটন পুলিশের এসআই আগে ঝিনাইদহে কর্মরত ছিলেন। এখন তিনি মেহেরপুরে বদলী হলেও তার পরিবার ঝিনাইদহে বসবাস করছেন। ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, ট্রাকটি ড্রাইভারসহ আটক করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা খারাপ।