সোনাইমুড়ীতে বিধি লঙ্ঘন করে নিকাহ রেজিস্টার প্যানেল প্রস্তুত

প্রকাশিত : অক্টোবর ৩০, ২০২২ , ১২:৫৫ অপরাহ্ণ

ইয়াকুব নবী ইমন, নিজস্ব প্রতিনিধি, নোয়াখালী, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: সোনাইমুড়ীতে বিধি লঙ্ঘন করে নিকাহ রেজিস্টার প্যানেল প্রস্তুত করা হয়। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি গোপন রেখে আবেদনকারীদের সাক্ষাৎকার ছাড়াই মঙ্গলবার (২৫-১০-২০২২ইং) সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক নিকাহ রেজিস্টার প্যানেল প্রস্তুত করে পরের দিন বুধবার (২৬-১০-২০২২ইং) মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করে নিকাহ রেজিস্টারের লাইসেন্স মঞ্জুরি সংক্রান্ত উপদেষ্টা কমিটি। সূত্রে জানা যায়, মুসলিম বিবাহ ও তালাক (নিবন্ধন) বিধিমালা ২০০৯ এর বিধান মোতাবেক নোয়াখালী জেলাধীন সোনাইমুড়ী উপজেলার সোনাইমুড়ী পৌরসভার ১ ও ২ নং ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিস্টার মৃত্যুজনিত কারনে নিকাহ রেজিস্টারের পদ শূন্য হওয়ায় উক্ত শূন্য পদে লাইসেন্স প্রদানের মাধ্যমে নিকাহ রেজিস্টার নিয়োগের নিমিত্তে প্যানেল প্রস্তুত-কল্পে সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দাদের নিকট হতে গত ১১-১০-২০২২ ইং তারিখের মধ্যে দরখাস্ত নেয়া হয়। এতে আগ্রহী প্রার্থীরা নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার নিকাহ রেজিস্টারের লাইসেন্স মঞ্জুরি সংক্রান্ত উপদেষ্টা কমিটির সদস্য সচিব ও সোনাইমুড়ীর সাব-রেজিস্টার বরাবর আবেদন করে। কিন্তু উপদেষ্টা কমিটি নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে চাটখিল উপজেলার (অন্য উপজেলা) ৪ নং বদলকোট ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড (হিরাপুর-নিশ্চিন্তপুর) এর মোঃ বেলায়েত হোসেনের ছেলে হিরাপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন (হেফজু) এর আবেদন গ্রহণ করে তার নাম গত বুধবার ২৬-১০-২০২২ইং প্যানেলের (স্বারক নং-২১১) ক্রমিক নং ১ নাম্বারে লিপিবদ্ধ করে নিকাহ রেজিস্টারের লাইসেন্স মঞ্জুরি সংক্রান্ত উপদেষ্টা কমিটি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করে। প্যানেলের ১ নং ক্রমিকধারী মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন চাটখিল উপজেলা ও থানা (অন্য উপজেলা ও থানা) ৪ নং বদলকোট ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড হিরাপুর গ্রামে তার স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা। তার জাতীয় পরিচয়পত্র ও জন্ম-নিবন্ধন উপরিউক্ত ঠিকানায়। সে ঠিকানা গোপন রেখে দরখাস্তে তার স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা সোনাইমুড়ী থানা, সোনাইমুড়ী পৌরসভা, গ্রাম-শিমুলিয়া লিখে। যা সঠিক নয়। ভুয়া চারিত্রিক সনদ নিজেই সৃজন করে। পৌরসভার সংশ্লিষ্ট এলাকার কাউন্সিলর কর্তৃক নাগরিকত্ব সনদ নেয়ার বিধান থাকলে সেটি দরখাস্তে যোগ করা হয়নি। নিকাহ রেজিস্টারের লাইসেন্স মঞ্জুরির (নিয়োগের) নিমিত্তে প্যানেল-ভুক্ত প্রার্থীদের তালিকায় ভুল তথ্য প্রদান করা হয়।
নিকাহ রেজিস্টারের লাইসেন্স মঞ্জুরির (নিয়োগ প্রক্রিয়াতে) নিমিত্তে প্যানেল-ভুক্ত প্রার্থীদের তালিকায় যোগ্য প্রার্থীকে অগ্রাধিকার না দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে যোগ্য করে ১ নং ক্রমিকধারী হিসেবে নাম লিপিবদ্ধ করা হয়। এতে করে সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া ব্যাহত হওয়ার আশংকা রয়েছে বলে মনে করে সংশ্লিষ্টরা।