মৌলভীবাজারে মুহুরির কারাদন্ড

প্রকাশিত : নভেম্বর ৮, ২০২২ , ৮:২৮ অপরাহ্ণ

মশাহিদ আহমদ, নিজস্ব প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: মৌলভীবাজারে বিজ্ঞ আইনজীবীর সংশ্লিষ্ট মামলায় পাওয়ার না থাকার পরেও হাজিরায় বিজ্ঞ আইনজীবীর সিল ও স্বাক্ষর নিয়ে আদালতে আসামির হাজিরা প্রদান এবং মামলা পরিচালনা করার অভিযোগে মোঃ কামাল হোসেন ওরফে কামরুল নামীয় এক মুহুরিকে ৪দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। তিনি কমলগঞ্জ উপজেলার ৭নং ওয়ার্ডের ভানুগাছ বাজার এলাকার মোঃ মাসুক মিয়ার পুত্র। মৌলভীবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চতুর্থ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক এম. মিজবাহ উর রহমান মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) বিকালে The Touts act Gi 1879 36(8) ধারার বিধান মতে উক্ত অভিযুক্ত মুহুরিকে টাউট সাব্যস্তে The Code of Criminal Procedure,1898 এর ৪৮০ ধারায় এই আদেশ প্রদান করেন। সূত্রে জানা গেছে, মুহুরি মোঃ কামাল হোসেন মঙ্গলবার সকালে জিআর- ৩৫৬/২১ (শ্রী) সংশ্লিষ্ট একটি মাদক মামলায় একজন বিজ্ঞ আইনজীবীর নাম ও স্বাক্ষর দিয়ে আদালতে হাজিরা দেন। ওই মামলায় মাদক অধিদপ্তরের সাক্ষীরা জবানবন্দি প্রদান করলেও বার বার ডেকে আসামির বিজ্ঞ আইনজীবীকে খুঁজে পাওয়া না গেলে বিজ্ঞ বিচারক আসামিকে তার নিযুক্ত বিজ্ঞ আইনজীবীর নাম কামরুল মর্মে জানান এবং বিজ্ঞ আদালত তাকে তার বিজ্ঞ আইনজীবীকে আদালতে নিয়ে আসতে বলেন। পরবর্তীতে আসামি বার বার ফোনে তার আইনজীবীর সাথে যোগাযোগ করলে অভিযুক্ত মুহুরি আদালতে হাজির হয় এবং আসামি তখন জানায় যে, তিনি উক্ত মুহুরির সাথেই মামলার যাবতীয় কথাবার্তা বলেছেন এবং আজ পর্যন্ত কোন আইনজীবীর সাথে তার দেখা হয়নি। অভিযুক্ত মুহুরিকে জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে যে, এই মামলায় যে বিজ্ঞ আইনজীবী স্বাক্ষরে হাজিরা প্রদান করা হয়েছে তার কোন ওকালতনামা নেই। ইতোপূর্বেও বিজ্ঞ আইনজীবীর পাওয়ার না থাকা সত্ত্বেও অভিযুক্ত মুহুরি উক্ত মামলায় একাধিক হাজিরা প্রদান করেন এবং সুনির্দিষ্ট কোন আইনজীবী ছাড়াই ফি গ্রহণ করে এই মামলা পরিচালনা করে আসছেন। অভিযুক্ত মুহুরিকে একাধিক আদালত হতে পূর্বে সর্তক করা হয়েছিল মর্মেও তিনি স্বীকার করেন। সূত্র আরো জানায়, গুটি কয়েক মুহুরি বিচার-প্রার্থীদেরকে কোন আইনজীবীর সাথে দেখা না করিয়ে ফি নিয়ে মামলার পরিচালনা করে আসছে। এ সংবাদ পরিবেশন পর্যন্ত মুহুরি মোঃ কামাল হোসেন আদালতের হাজত খানায় আটক রয়েছেন।