পঞ্চগড়ে আদালতের নির্দেশে ৭ কেজি মাদক জ্বালিয়ে ধ্বংস

প্রকাশিত : নভেম্বর ২১, ২০২২ , ৬:৪০ অপরাহ্ণ

ডিজার হোসেন বাদশা, নিজস্ব প্রতিনিধি, পঞ্চগড়, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযানে পঞ্চগড় সদর উপজেলায় জব্দকৃত ৭ কেজি ৫০০ গ্রাম ওজনের মাদক গাঁজা ধ্বংস করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে নির্দেশ দেওয়ার পর বিকেলে আদালতের চত্বরে আগুন জ্বালিয়ে মাদকগুলো নিজেই ধ্বংস করেন পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মতিউর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন, পঞ্চগড় জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক আশরাফুল হক, এসআই আবুল কালাম আজাদসহ পুলিশ সদস্যরা। সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পঞ্চগড় জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এস আই আবুল কালাম আজাদ সঙ্গীয় ফোর্সকে নিয়ে গত ২৬ অক্টোবর জেলা সদরের সোনারবান গ্রামে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে। এসময় দুই বসত বাড়ি থেকে ৭ কেজি ৫০০ গ্রাম গাজা জব্দ করা হয়। একই সাময় দুইজন গ্রেফতার করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যরা। এ সময় তাদের আরেক সহকর্মী পালিয়ে যায়। ঘটনার পর জব্দকৃত গাজাসহ আসামীদের থানায় নিয়ে তিন জনের নাম উল্লেখ্য করে মামলা দায়ের করা হয়। মাদক মামলার আসামীরা হলেন, নোয়াখালী জেলার সেনবাগ থানার কেশরপাড়া গ্রামের কালা মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৫), পঞ্চগড় সদর উপজেলার সোনারবান গ্রামের মৃত সুলতান আহম্মেদের ছেলে শফিকুল ইসলাম ওরফে রিপন (৫০)। পলাতক রয়েছে শফিকুল ইসলাম ওরফে রিপনের স্ত্রী আফরোজা আক্তার ববি (৪২)। এদিকে আদালত আটক দুই আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। একই সাথে পলাতক ববিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।