ছোট ভাইয়ের লাঠির আঘাতে বড় ভাই নিহত

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১৩, ২০২২ , ১০:০৪ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহ ব্যুরো, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:ময়মনসিংহের নান্দাইলে পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে তালগাছের মালিকানাকে কেন্দ্র করে ছোট ভাইয়ের বাশেঁর লাঠির আঘাতে সহোদর বড় ভাই জসিম উদ্দিন (৬৫) নিহত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে নান্দাইল উপজেলার চন্ডিপাশা ইউনিয়নের নিজ বানাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত পরিবারের অভিযোগ জসিম উদ্দিনকে প্রকাশ্য দিবালোকে বাশেঁর লাঠি দিয়ে আঘাত করে মেরে ফেলা হয়েছে। নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নান্দাইল উপজেলার চন্ডিপাশা ইউনিয়নের নিজ বানাইল গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে জসিম উদ্দিনের সঙ্গে তার সহোদর তিন ভাইয়ের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ির পুকুর পাড়ে তালগাছের মালিকানা নিয়ে জসিম উদ্দিনের সঙ্গে তার ছোট ভাই বাহার উদ্দিনের বাকবিতণ্ডা হয়। এসময় জসিম উদ্দিনের পুত্রবধূ শরীফা তালগাছের শুকনো ডাল (কাণ্ড) গাছ থেকে পারতে গেলে বাহার উদ্দিনের স্ত্রী সোমা আক্তার বাধা দেয়। পরে বিষয়টি নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে তুমুল বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে ছোট ভাই বাহার উদ্দিন তার হাতে থাকা বাঁশের লাঠি দিয়ে তার বড় ভাই জসিম উদ্দিনের মাথায় আঘাত করে। এসময় জসিম উদ্দিন গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে পড়ে যায়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত জসিম উদ্দিনকে উদ্ধার করে দ্রুত নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ বিষয়ে নিহতের ছেলে আজিজুল ইসলাম বলেন, বাড়িতে একা পেয়ে আমার বাবাকে বাঁশের লাঠি দিয়ে আঘাত করে মেরে ফেলা হয়েছে। আমি খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার সহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি। এদিকে ঘটনার পর থেকে বাহার উদ্দিন সহ তার পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে চলে গেছে। তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান আকন্দ এ বিষয়ে জানান, ভাইদের মধ্যে গোলযোগ ছিল বলে জানতে পেরেছি। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে সেইসাথে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর বিস্তারিত বলা যাবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।