১৬ লাখ টাকার মাসকালাইসহ ট্রাক নিয়ে ড্রাইভার উধাও

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ , ৬:২৫ অপরাহ্ণ

আশরাফুল ইসলাম, নিজস্ব প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: চাঁপাইনবাবগঞ্জের রানিহাটি কলেজ মোড় থেকে মাসকলাইসহ ট্রাক যাবে সিরাজগঞ্জের হিমু ডাল মিলে। সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত ১০টার দিকে গন্তব্য স্থলের উদ্দেশ্য যাত্রা শুরু করে ৩৪৯ বস্তা মাসকলাইভর্তি ট্রাকটি। এরপর ১৬ লাখ ৫৮ হাজার ৮৬২ টাকা মূল্যের ১৭ হাজার ৪৫০ কেজি মাসকলাই নিয়ে উধাও হয়ে যায় সেই ট্রাক। খবর নিয়ে জানা যায়, দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও সিরাজগঞ্জের হিমু ডাল মিলে পৌঁছায়নি ট্রাক। এদিকে, ট্রাক ছেড়ে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর থেকেই মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায় বগুড়ার ধনুট উপজেলার বধুয়াবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা ট্রাক ড্রাইভার হাফিজুল ইসলামের। সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না ট্রাকের। এতেই কপাল পুড়েছে ঋণ করে মাসকলাই কেনা ব্যবসায়ী চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের নিচুধূমি গ্রামের মৃত হুমায়ন কবীরের ছেলে হাবিবুর রহমান হাবিবের। এনিয়ে ট্রাক ও মাসকলাইয়ের সন্ধান পেতে শিবগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন মাসকলাই ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান৷ এছাড়াও অভিযোগ দিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশ সুপার, র‌্যাব-৫ সিপিসি-১ চাঁপাইনবাবগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক বরাবর। ঋণের টাকায় কেনা মাসকলাইভর্তি ট্রাক হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন হাবিব। মাসকলাই ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার আমনুরা বালিকাপাড়া এলাকার ট্রাকে মালামাল পাঠানোর মধ্যস্থতাকারী (দালাল) রাজু আহমদের মাধ্যমে ট্রাকটির সন্ধান পায়। সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত ১০টার দিকে ঢাকা মেট্রো-ট- ১৮-২৬০২ নম্বরের গাড়িটি মাসকলাইভর্তি করে সিরাজগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে দেয়। রানিহাটি কলেজ মোড় থেকে গন্তব্য স্থল সিরাজগঞ্জের হিমু ডাল মিলের দূরত্ব ৫-৬ ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাওয়া গেলেও পরে সেখানে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি ট্রাকটি সেখানে পৌঁছায়নি।
তিনি আরও বলেন, ট্রাক ছাড়ার কয়েক ঘণ্টা পর থেকে ড্রাইভারের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। দালাল রাজুর সাথে কথা বললেও সে কোন দায়িত্ব নিতে চাই না এবং বিভিন্নরকম টালবাহানা করছে। মাসকলাইভর্তি ট্রাকের সন্ধান না পেলে আমি নিঃস্ব হয়ে যাব। ঋণের টাকায় কেনা মাসকলাই বিক্রি করে ঋণ শোধ করতাম। ধারনা করছি, ট্রাক ড্রাইভার আমার মাসকলাইগুলো আত্বসাৎ করতেই এমন কাজ করেছে। তার এমন অপরাধের কারনে আমাকে পথে বসতে হবে। ট্রাকের দালাল (মধ্যস্থতাকারী) রাজু আহমেদ জানান, বাইরের জেলার বিভিন্ন ট্রাক ভাড়া নিয়ে এসে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ট্রাক টার্মিনালে অবস্থান করে এবং এখান থেকে ভাড়া নিয়ে যায়। এমনভাবেই মাসকলাই নিয়ে যাওয়া ট্রাকটির ড্রাইভার একটি ভাড়া দেখতে বলে। এদিকে, মাসকলাই ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান একটি ট্রাক ভাড়া নিতে চাই। উভয়পক্ষের সাথে কথা বলে ৯৫০০ টাকায় ভাড়া নির্ধারণ করে সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত ১০টার দিকে গাড়িটি ছেড়ে যায়। এর থেকে বেশি কিছু জানি না। এমনকি ট্রাক ড্রাইভারের ফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। ট্রাক ড্রাইভার হাফিজুলের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। শিবগঞ্জ থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) জোবায়ের আহমেদ মুঠোফোনে বলেন, মাসকলাইভর্তি ট্রাক নিয়ে ড্রাইভার উধাওয়ের ঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত-কাজ শুরু করেছে পুলিশ। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।