কবিতার ইতিহাসে বিদ্রোহী এক অনন্য সাধারণ রচনা:সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত : মে ১৬, ২০২২ , ৮:৪২ অপরাহ্ণ

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, ফাইল ছবি।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, কবিতার ইতিহাসে ‘বিদ্রোহী’ এক অনন্য সাধারণ রচনা। বিশ্বসাহিত্যেও এর তুলনা নেই। অনবদ্য ছন্দ অতি ভাবানুগত ধ্বনি-মাধুর্যে গরীয়ান ‘বিদ্রোহী’ কবিতাটি বাংলা সাহিত্যের একটি অতি বিশিষ্ট কাব্য। মাত্র ২২ বছর বয়সে নজরুল রচনা করেন প্রায় ১৪১ পঙক্তির এই ভুবনবিজয়ী কবিতা। ১৯২১ সালের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে কলকাতার ৩/৪-সি তালতলা লেনের ভাড়াবাড়ির একতলায় তিনি কবিতাটি রচনা করেন। ঔপনিবেশিক শোষণ, সামন্ত মূল্যবোধ ও ধর্মীয় কুসংস্কারের বিরুদ্ধে সচেতন বিদ্রোহী রূপে ‘বিদ্রোহী’ কবিতায় আবির্ভূত হন নজরুল। প্রতিমন্ত্রী সোমবার রাজধানীর বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘বিদ্রোহী’ কবিতার শতবর্ষ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে কবি নজরুল ইনস্টিটিউট আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। প্রধান অতিথি বলেন, ‘বিদ্রোহী’ কবিতার প্রথম শ্রোতা ছিলেন মুজাফফর আহমদ। মুজাফফর আহমদের স্মৃতিকথা উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, নজরুল সম্ভবত শেষ রাত্রে ঘুম থেকে উঠে একবসায় কবিতাটি লিখেছেন। দোয়াতে বারে বারে কলম ডোবাতে গিয়ে তার মাথার সঙ্গে তার হাত তাল রাখতে পারবে না ভেবে নজরুল কবিতাটি প্রথমে পেন্সিলে লিখেছিলেন। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘বিদ্রোহী’ কবিতার শতবর্ষ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কর্মসূচির কথা উল্লেখ করে কে এম খালিদ বলেন, এ উপলক্ষ্যে কবি নজরুল ইনস্টিটিউট ‘বিদ্রোহী’ কবিতা নিয়ে ১০০টি প্রবন্ধের একটি সংকলন গ্রন্থ প্রকাশ করেছে। কবি নজরুল ইনস্টিটিউট এর নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ জাকীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন কবিপৌত্রী খিলখিল কাজী। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। আলোচনা করেন বিশিষ্ট নজরুল গবেষক ও বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) এর চেয়ারম্যান এ এফ এম হায়াতুল্লাহ। অনুষ্ঠানে ‘বিদ্রোহী’ কবিতা আবৃত্তি করেন বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী মাহিদুল ইসলাম। আরো আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পী ড. শাহাদাৎ হোসেন নিপু। একক সংগীত পরিবেশন করেন বিশিষ্ট নজরুল সংগীত শিল্পী ইয়াকুব আলী খান, ফাতেমা-তুজ-জোহরা, সালাউদ্দিন আহমেদ, ইয়াসমিন মুসতারি, রুমি আজনবী, বদরুন্নেছা ডালিয়া ও সুমন দাস। কবি রেজাউদ্দিন স্টালিনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে দলীয় নৃত্য পরিবেশন করেন কবিরুল ইসলাম রতন ও তার দল। এছাড়া অনুষ্ঠানে কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের প্রশিক্ষণার্থী শিল্পীবৃন্দের পরিবেশনায় দলীয় সংগীত পরিবেশিত হয়।