দেশ ও সমাজকে সাজাতে শিক্ষার বিকল্প নেই: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব

প্রকাশিত : জুন ৪, ২০২২ , ১১:৪৩ অপরাহ্ণ

আশুলিয়া (ঢাকা), ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ আমিনুল ইসলাম খান বলেছেন, শিক্ষা অজ্ঞতা-অন্ধতার অবসান ঘটিয়ে আলোকিত আগামীর পথ দেখায়। শিক্ষা সমাজে কাঙ্ক্ষিত ইতিবাচক পরিবর্তনই শুধু আনে না, এটি কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি সমৃদ্ধ জীবনের দুয়ার খুলে দেয়। তাই দেশ ও সমাজকে সাজাতে শিক্ষার বিকল্প নেই। আর মানসম্মত শিক্ষা প্রদান করতে মানসম্মত শিক্ষক অপরিহার্য। মানসম্মত শিক্ষক সৃষ্টির জন্য প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। প্রশিক্ষণ আত্মজিজ্ঞাসার দুয়ার খুলে দেয়। সৃষ্টি করে আত্মপ্রত্যয়। শনিবার ঢাকার আশুলিয়ায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘তাজকেরা- গোলাম মোস্তফা সেন্টার ফর টিচিং এন্ড লার্নিং’ – এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। সিনিয়র সচিব বলেন, উচ্চ শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করতে শিক্ষকদের পেশাগত দক্ষতা ও শিক্ষণ মান উন্নয়ন অতীব গুরুত্বপূর্ণ। ছাত্রদের মাঝে কৌতূহল সৃষ্টি, তাদের মননে জানার জন্য অনন্ত পিপাসা জাগ্রত করতে পারাই সফল শিক্ষকের পরিচায়ক। তিনি বদলে যাওয়া পৃথিবীর পরিবর্তিত রূপের সাথে উপযোগী করে গড়ে তুলতে শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন আমেরিকার পুরডিউ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মোঃ আহমেদ মোস্তফা, অধ্যাপক আহমেদ ইসমাইল মোস্তফা, বিচারপতি জামিল মোস্তফা, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অভ্ বিজনেস এন্ড টেকনোলজির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান সারওয়ার কামাল প্রমুখ। অনুষ্ঠানে ‘তাজকেরা- গোলাম মোস্তফা সেন্টার ফর টিচিং এন্ড লার্নিং’ এর পক্ষ থেকে করোনাকালীন সময়ে পরিচালিত অনলাইন কোর্সের মেন্টরদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়।