ইবির নিয়োগ বোর্ড থেকে বিতর্কিত দুই শিক্ষককে অব্যাহতি

প্রকাশিত : আগস্ট ১১, ২০২২ , ৬:০৮ অপরাহ্ণ

হেলালী ফেরদৌসি, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ঝিনাইদহ জেলায় অবস্থিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) দুটি বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ বোর্ড থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই বিশেষজ্ঞকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত আইন বিভাগের প্রফেসর ড. রহমত উল্লাহর বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুকে হত্যায় অভিযুক্ত খন্দকার মোশতাকের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো এবং ক্লিনিক্যাল ফার্মেসি ও ফার্মাকোলজি বিভাগের প্রফেসর ড. আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ নিয়ে বিতর্ক উঠলে সিন্ডিকেট তাদেরকে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তারা যথাক্রমে ইবির আল-ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্টাডিজ ও ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ বোর্ডের বিশেষজ্ঞ ছিলেন। মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫৫তম সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এর আগে অধ্যাপক রহমত উল্লাহকে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাবির একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল। জানা গেছে, ৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬টি বিভাগের জন্য আলাদা নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ডের অনুমোদন দেন ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম। এসময় ওই দুই শিক্ষককে বোর্ডের সদস্য করা হয়। পরে তাদের নিয়ে বিতর্ক ওঠে। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার প্রেক্ষিতে সর্বশেষ সিন্ডিকেট সভায় বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তোলেন সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু। পরে সভায় অন্য সদস্যদের সম্মতিতে অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে বিশেষজ্ঞ থেকে অব্যাহতি দেয় সিন্ডিকেট। অধ্যক্ষ সাজু বলেন, দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত ও খুনি মোশতাককে শ্রদ্ধা জানানো ব্যক্তিরা কী করে নিয়োগ বোর্ডের বিশেষজ্ঞ হতে পারে? এদেরকে বাদ দেওয়ার প্রস্তাব করার পর সভায় অন্যরা একমত হলে তাদের বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। সিন্ডিকেট সদস্য সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের প্রফেসর ড. রাকিবা ইয়াসমিন বলেন, সেই দুই শিক্ষককে অব্যাহতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাদের স্থলাভিষিক্ত করা হবে। প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গুলো সিলেকশন দেওয়ার পরে। এখন তাদের পাণ্ডিত্য দেখে বাদ দেওয়া কঠিন। নতুন করে এখনও মনোনীত করা হয়নি। এখানে ইউনিভার্সেললি নিরপেক্ষতা দেখে এপ্রেশিয়েট করার লোক কম। পক্ষে গেলে সব ঠিক নয়তো আপত্তি তুলে।