বনজঙ্গল উজাড় করায় প্রকৃতি তার ভারসাম্য হারাচ্ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : এপ্রিল ৭, ২০২২ , ৭:৪৬ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, নিজেদের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে হলে পৃথিবীর স্বাস্থ্য ভালো রাখতে হবে। পৃথিবীর স্বাস্থ্য নষ্ট করছে আমেরিকা, চীন, ইউকে বা রাশিয়ার মতো বড় ও উন্নত রাষ্ট্রগুলো। তারা কার্বনের যত্রতত্র ব্যবহার করাসহ পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখছে। এগুলো করে তারা (উন্নত বিশ্ব) আরো উন্নত হচ্ছে ঠিকই কিন্তু এর প্রভাব বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশকে বয়ে বেড়াতে হচ্ছে। উন্নত বিশ্বের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কারণে জলবায়ুর ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে, পৃথিবীর স্বাস্থ্যের ক্ষতি হচ্ছে। পৃথিবীর স্বাস্ব্য, প্রকৃতির স্বাস্থ্য ভালো না। সারা বিশ্বে উন্নতি হচ্ছে, তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পরিবেশ, পানি, আবহাওয়া, মাটি সব নষ্ট হচ্ছে। এদিকে সবাইকে নজর দিতে হবে, সচেতন হতে হবে।
মন্ত্রী বৃহস্পতিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০২২’ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ‘সুরক্ষিত বিশ্ব, নিশ্চিত স্বাস্থ্য’ এই প্রতিপাদ্যে সারা বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও দিবসটি পালন করা হয়।
বাংলাদেশে বায়ু দূষণ, পানি দূষণ বা শব্দ দূষণের বিষয়টি তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘দেশে খাদ্যে ভেজাল মেশানো বা শব্দ দূষণ কিংবা পানি দূষণ বেশি বেড়ে গেছে। শব্দ দূষণে মানুষের শ্রবণশক্তি হ্রাস পাওয়াসহ জটিল রোগ হচ্ছে। পানি দূষণের কারণে ডায়রিয়া বেড়ে গেছে। বনজঙ্গল উজাড় করা হচ্ছে। যত্রতত্র বিল্ডিং নির্মাণের কারণে বায়ু দূষণ হচ্ছে। ফলে বিশ্বের তাপমাত্রা বাড়ছে, প্রকৃতি তার ভারসাম্য হারাচ্ছে। এসব কিছুর প্রভাব পড়ছে মানব দেহে। এ থেকে সবাইকে বেরিয়ে আসতে হবে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, বিএমএ সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, স্বাচিপ সভাপতি অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেসা এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।