শেখ হাসিনার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২ , ১০:১৫ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ডাক অধিদপ্তর স্মারক ডাকটিকিট ও উদ্বোধনী খাম অবমুক্ত এবং ডেটাকার্ড ও বিশেষ সিলমোহর প্রকাশ করেছে। এছাড়া ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং আর্কাইভ ১৯৭১’র উদ্যোগে শেখ হাসিনার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের ওপর ঢাকা জিপিও প্রাঙ্গণে দুই দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বুধবার ঢাকায় জিপিও মিলনায়তনে দশ টাকা মূল্যমানের স্মারক ডাকটিকিট ও দশ টাকা মূল্যমানের উদ্বোধনী খাম অবমুক্ত এবং পাঁচ টাকা মূল্যমানের ডেটা কার্ড ও বিশেষ সিলমোহর প্রকাশ করেছেন। এর আগে মন্ত্রী ফিতা কেটে শেখ হাসিনার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের ওপর ঢাকা জিপিও প্রাঙ্গণে দুই দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মোঃ খলিলুর রহমান, ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফয়জুল আজিম এবং আর্কাইভ একাত্তরের কর্ণধার সাংবাদিক প্রণব সাহা উপস্থিত ছিলেন।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ও তাঁর সাড়ে আঠারো বছরের শাসনামলে বাংলাদেশের বিস্ময়কর অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরেন। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার মতো একজন দূরদৃষ্টিসম্পন্ন রাজনীতিক এবং একজন প্রজ্ঞাবান সরকারপ্রধানের জন্মবার্ষিকী পালন করতে পেরে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং ব্যক্তিগতভাবে আমি গর্ববোধ করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আত্মপ্রচার বিমুখ, নিরহংকারী এবং চিরায়ত বাংলার অতি সাধারণ মানুষের জীবনযাপনে অভ্যস্ত একজন মানুষ হিসেবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা হয়েও তিনি অতি সাধারণ পোশাক পরিচ্ছদ পছন্দ করতেন। সহপাঠী এবং ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ছাড়া সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীতো দূরের কথা অনেক শিক্ষকরাও জানতেন না তিনি বঙ্গবন্ধুর কন্যা। ১৯৮১ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত সময়ে কঠিন রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জ ও ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার অভিযাত্রা শুরু করেন। তাঁর ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বিশ্বে অনন্য উচ্চতার শিখরে অধিষ্ঠিত হয়েছে বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মবার্ষিকী পালন দেশবাসীর জন্য খুবই আনন্দের ও গর্বের। শেখ হাসিনার হাতেই উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণ সম্ভব। তিনি বাংলাদেশের অগ্রগতির এই অগ্রযাত্রাকে আরো বেগবান করতে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য নিজ নিজ অবস্থান থেকে প্রত্যেককে কাজ করার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এর আগে মন্ত্রী আলোকচিত্র প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন।