স্কুলগুলো শিক্ষার্থী দিয়ে ভরিয়ে তুলতে হবে

প্রকাশিত : অক্টোবর ৯, ২০২২ , ৯:২০ অপরাহ্ণ

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন, সংগৃহীত চিত্র।

রৌমারি, কুড়িগ্রাম, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, স্কুলগুলো আগের মতো আর ভাঙা টিনের ঘর নেই। তিনি বলেন, আমি যখন গাড়িতে বিভিন্ন জায়গায় যাই একটু উকি দিলেই দেখি আমার স্কুল আমার দিকে চেয়ে আছে। আপনাদের গ্রামের বাড়ির চেয়ে এখন স্কুল সুন্দর। বাউন্ডারি গেটসহ ওয়াল করা হয়েছে। লাল, নীল রং করা আছে। সুন্দর স্কুলগুলো শিক্ষার্থীদের দিয়ে পরিপূর্ণ করতে হবে। তবেই সুন্দর ভবন করা সার্থক হবে। রবিবার কুড়িগ্রামের রৌমারীর উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের আমবাড়ী তেলিমোড় নদীভাঙন এলাকা পরিদর্শনে যান গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী। সেখানে ডিগ্রিরচর হলহলিয়া নদী মুখে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই দেশ বঙ্গবন্ধুর, বঙ্গবন্ধু আমাদের জাতির পিতা। তিনি দেশ দিয়েছেন, পতাকা দিয়েছেন, এই দেশ বানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু। নদী ভাঙলেও আমরা কষ্ট পাই, রাস্তা-ঘাট না থাকলে আমরাও কষ্ট পাই, এটার নাম আওয়ামী লীগ। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, অন্য আমল দেখেন আর আজকের অবস্থা দেখেন, আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমাদের কাপড়ের অভাব নেই। আজকে কমিউনিটি ক্লিনিক আপনাদের দরজায়। আপনারা এখানে স্বাস্থ্যসেবা পান। সরকারি হাসপাতালেও চিকিৎসার সুব্যবস্থা আছে। শিক্ষার্থীদের মায়েদের হাতে এখন মোবাইলে উপবৃত্তির টাকা পোঁছে যাচ্ছে। এবার পোশাকের এক হাজার টাকা করে দিয়েছে সরকার। স্কুলে বিস্কুট দেয়া হচ্ছে। মানববন্ধন ও আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোজাফর হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মিনুসহ এলাকার জনসাধারণ।