প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ সম্পাদিত হয়েছে

প্রকাশিত : অক্টোবর ২৩, ২০২২ , ৭:২১ অপরাহ্ণ

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, সংগৃহীত চিত্র।

মুক্তাগাছা, ময়মনসিংহ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমার নির্বাচনি এলাকা ময়মনসিংহের মুক্তাগাছাসহ সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ সম্পাদিত হয়েছে। সরকারের এসব উন্নয়ন কর্মকাণ্ড প্রচার করা সাংবাদিকদের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য। সাংবাদিকরা জাতির বিবেক। রবিবার ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা প্রেসক্লাবের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে প্রেসক্লাব আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণের পর মুক্তাগাছার উন্নয়নে আমি ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছি যার অনেকগুলো ইতোমধ্যে বাস্তবায়িত হয়েছে এবং অনেকগুলো পাইপলাইনে রয়েছে। তাছাড়া গত মেয়াদে সংসদ সদস্য থাকাকালীনও মুক্তাগাছার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। নির্বাচনি ইশতেহার অনুয়ায়ী মুক্তাগাছার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। কে এম খালিদ বলেন, ১ হাজার ১০৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ময়মনসিংহ-মুক্তাগাছা-মধুপুর মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণের প্রকল্প একনেকে অনুমোদিত হয়েছে। মুক্তাগাছা উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ১৫০ কি.মি. পাকা রাস্তা নির্মাণ প্রকল্প চূড়ান্ত অবস্থায় রয়েছে যা শীঘ্রই একনেকে যাবে। তিনি বলেন, মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে আধুনিকায়ন করা হয়েছে যেখানে সিজারিয়ান অপারেশনসহ দৈনিক ১ হাজার ৩০০ থেকে ১ হাজার ৪০০ জন রোগীর চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। এ হাসপাতাল ময়মনসিংহ বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। মুক্তাগাছা উপজেলার ৩৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চার তলা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। মুক্তাগাছায় হাইটেক পার্ক, টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট নির্মাণের লক্ষ্য কাজ চলমান রয়েছে। তাছাড়া মুক্তাগাছা উপজেলায় শিল্প-সংস্কৃতির প্রসারে একটি আধুনিক অডিটোরিয়াম ও একটি শহিদ মিনার নির্মাণ প্রকল্পও চূড়ান্ত পর্যায়ে। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, যেকোনো প্রেসক্লাবের উন্নয়নে নিয়মিত আয়ের উৎস দরকার। মুক্তাগাছা প্রেসক্লাবের জমি স্থায়ীভাবে (৯৯বছরের জন্যা) তাদের বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। জমিটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থিত হওয়ায় মিলনায়তনসহ আধুনিক ভবন নির্মাণ করতে পারলে নিয়মিত আয়ের একটি বন্দোবস্ত হবে। মুক্তাগাছা প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সভাপতি এফ এম এ সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন মুক্তাগাছা পৌরসভার মেয়র আলহাজ বিল্লাল হোসেন সরকার। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মুক্তাগাছা প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সদস্য এ জেড এম ইমাম উদ্দিন মুক্তা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মুক্তাগাছা প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম ইদ্রিছ আলী। প্রতিমন্ত্রী এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। এর আগে প্রতিমন্ত্রী মুক্তাগাছা উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস আয়োজিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়সমূহে সংস্কৃতি চর্চা কার্যক্রম সম্প্রসারণ এর আওতায় মুক্তাগাছার ৪৪টি বিদ্যালয়ের সংগীত প্রশিক্ষক ও তবলা বাদকের মাঝে অনুদানের অর্থ বিতরণ করেন।