দেশের টেকসই উন্নয়নের জন্য ভারসাম্যপূর্ণ যোগাযোগ ব্যবস্থা জরুরি

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৫, ২০২২ , ১১:৩৩ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: ‘টিকিট যার ভ্রমণ তার’ এ প্রতিপাদ্যে রেলওয়ে সেবা সপ্তাহের উদ্বোধন করেছেন রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নুরুল ইসলাম সুজন। মন্ত্রী মঙ্গলবার ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে রেলসেবা সপ্তাহের উদ্বোধন করেন। সেবা সপ্তাহ উপলক্ষ্যে মন্ত্রী সুবর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রীদের ফুলের শুভেচ্ছা জানান ও চকলেট বিতরণ করেন। পরে রেলওয়ে সেবা সপ্তাহ উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় মন্ত্রী বলেন, ১৫ নভেম্বর রেলওয়ের জন্য এক ঐতিহাসিক দিন। ১৮৬২ সালের এই দিনে ব্রিটিশ সরকার সর্বপ্রথম এ অঞ্চলে ট্রেন চালু করেছিল। মন্ত্রী বলেন, একটি দেশের টেকসই উন্নয়নের জন্য ভারসাম্যপূর্ণ যোগাযোগ ব্যবস্থা জরুরি। তিনি বলেন, একসময় রেল অবহেলিত ছিল। রেলের কর্মকর্তা/ কর্মচারীরা হতাশাগ্রস্ত ছিল কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আলাদা মন্ত্রণালয় করে দেওয়ার পরে রেলওয়ের উন্নতি সাধিত হচ্ছে। বর্তমানে রেলের অনেকগুলো প্রকল্প চলমান রয়েছে। মন্ত্রী কয়েকটি প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে বলেন, ঢাকা টঙ্গীর মধ্যে তৃতীয় ও চতুর্থ রেললাইন, টঙ্গী জয়দেবপুরের মধ্যে দ্বিতীয় রেললাইন নির্মিত হচ্ছে। যমুনা নদীর উপর বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতু ডাবল লাইন নির্মিত হচ্ছে‌। এটি নির্মিত হলে উত্তর- পশ্চিমাঞ্চলের সাথে পূর্বাঞ্চলের রেল যোগাযোগ উন্নত হবে। পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের আওতায় আগামী জুনে ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত ট্রেন চালু হয়ে যাবে। মন্ত্রী আরো বলেন,আগামী বছর জুনে ঢাকা থেকে কক্সবাজার সরাসরি ট্রেন চালু করা সম্ভব হবে। খুলনা থেকে মংলা পর্যন্ত রেললাইন আগামী জুনে চালু হয়ে যাবে। সিরাজগঞ্জ থেকে বগুড়া পর্যন্ত নতুন রেললাইন নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। সারাদেশের মিটার গেজ রেললাইনকে পর্যায়ক্রমে ব্রডগেজে রূপান্তরের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। দেশের প্রতিটি জেলাকে রেল সংযোগের আওতায় আনার পরিকল্পনা বর্তমান সরকারের রয়েছে। এছাড়া ভবিষ্যতে ইলেকট্রিফিকেশন এর মাধ্যমে ট্রেন চালিত করা হবে বলে মন্ত্রী জানান। যাত্রীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, রেলের সম্পদ জনগণের । যাত্রীদেরও দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে। সীমিত সামর্থের মধ্য থেকে যাত্রীদের সেবা বৃদ্ধির চেষ্টা করে যাচ্ছে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্রনাথ মজুমদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ডঃ মোঃ হুমায়ুন কবীর। এছাড়া রেলওয়ে শ্রমিক লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবীর ও সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান আকন্দ বক্তব্য রাখেন।