বঙ্গবন্ধু কখনো ধর্মকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করেননি

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৯, ২০২২ , ৮:৩১ অপরাহ্ণ

সুরেশ্বর, শরীয়তপুর, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল শামীম বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন উদার চেতনার অধিকারী একজন খাঁটি মুসলমান। তিনি কখনো ধর্মকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করেননি। তাঁরই যোগ্য উত্তরসূরি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাও ইসলামের উন্নয়ন এবং প্রচার-প্রসারের মাধ্যমে মুসলিম জনগোষ্ঠীর ধর্মীয় কর্মকাণ্ডকে যথাযোগ্য মর্যাদায় উন্নতি করেছেন। ধর্মকে কেউ যেন হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে না পারে সেজন্য সবাই সজাগ থাকতে হবে। শনিবার শরীয়তপুরের নড়িয়ায় পবিত্র সুরেশ্বর দরবার শরীফে হযরত মাওলানা জানশরীফ শাহ্ সুরেশ্বরী (রহ.)-এর শুভ আবির্ভাব দিবস উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে বক্তৃতায় উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন উপমন্ত্রী শামীম বলেন, ভোট এলেই একটি গোষ্ঠি হীন উদ্দেশ্যে ধর্মকে ব্যবহার করে। দেশের আলেম,পীর মাশায়েক সমাজকে এ ব্যাপারে সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে। ইসলাম শান্তির ধর্ম, ইসলামে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের কোনো স্থান নেই। বাংলাদেশকে সব ধর্মের সব মানুষের জন্য শান্তির দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে বঙ্গবন্ধু ছিলেন সদা সচেষ্ট। দেশের মানুষের ধর্মীয় অনুভূতি ও মূল্যবোধের বিষয়ে বিবেচনায় রেখে তিনি ইসলামের প্রচার-প্রসারে গ্রহণ করেছিলেন বাস্তবভিত্তিক ও কার্যকরী নানা ব্যবস্থা। উপমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যেমন একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্রের মহান স্থপতি, তেমনি বাংলাদেশে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ইসলামের প্রচার-প্রসারের স্থপতিও তিনি। মহান ধর্ম ইসলামের কল্যাণময় স্রোতধারায় সঞ্জীবিত করার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ইসলামের প্রচার ও প্রসারে নানমুখী উদ্যোগ নিয়েছেন। এর মধ্যে ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ, দেশের ৩১টি কামিল মাদ্রাসায় অনার্স কোর্স চালু করা, যোগ্য আলেমদের ফতোয়া প্রদানে আদালতের ঐতিহাসিক রায়, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সৌন্দর্যবর্ধন ও সম্প্রসারণ, সুউচ্চ মিনার নির্মাণ, সারাদেশে ৫০০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামি সেন্টার নির্মাণ উল্লেখযোগ্য। অনুষ্ঠানে সখিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মোল্যা, জেলা পরিষদ সদস্য এমএ কাইয়ুম, হযরত মাওলানা জানশরীফ শাহ্ সুরেশ্বরী (রহ.)- বংশধর সাইয়্যেদ কামাল নুরী, সাইয়্যেদ বেল্লাল নুরী, সাইয়্যেদ ইকবাল নুরী, আশেক্কীনে আউলিয়া ঐক্য পরিষদের সভাপতি সাইয়্যেদ আলম নুরী আল সুরেশ্বরী, শাহিন নূরী, অদিত শাহ নূরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।