পদ্মা সেতু হচ্ছে বাঙালিদের দাবিয়ে না রাখতে পারার প্রতীক: এনামুল হক শামীম

প্রকাশিত : জুন ৩, ২০২২ , ৬:৪৭ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন, ‘বাঙালিদের কেউ দাবায় রাখতে পারবা না’। পদ্মা সেতু হচ্ছে বাঙালিদের দাবিয়ে না রাখতে পারার প্রতীক। বাঙালি জাতি কারও কাছে মাথা নত করেনি, কোনো দিন করবেও না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু আমাদের মাথা উঁচু করে চলতে শিখিয়েছেন। শত বাঁধা-বিপত্তি, দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত উপেক্ষা করে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু বাস্তবায়ন করে দেখিয়ে দিয়েছেন। তিনি সততায় সেরা, মেধায় সেরা, দক্ষতায় সেরা। সেরাদের সেরা প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার শরীয়তপুরের সখিপুর থানার দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বর্ধিত সভা এবং সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচিতে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উপ- মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু বাঙালির গর্বের প্রতীক, মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার প্রতীক। এই প্রতীক যুগ যুগ ধরে বাঙালিকে সামনের দিকে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যেতে অনুপ্রেরণা জোগাবে। পদ্মা সেতু আমাদের স্বপ্ন ছিল। সেই স্বপ্ন এখন বাস্তব। এটা আমাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া। এটা দেশের মানুষের জন্য গর্ব করার মতো বিষয়। প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ়তা ও বিচক্ষণতার ফসল পদ্মা সেতু। আর এর মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের আকাঙ্ক্ষা পূরণ হতে যাচ্ছে, নিঃসন্দেহে এটা বিশাল অর্জন। বিএনপি সম্পর্ক উপমন্ত্রী শামীম বলেন, পদ্মাসেতু বাস্তবায়ন হচ্ছে দেখে সবাই খুশি হলেও বিএনপির গাত্রদাহ হচ্ছে। তারা অন্তরজ্বালায় জ্বলছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছে বলেই, মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ হয়েছে। কর্ণফুলী টানেল হয়েছে, মেট্রোরেল হচ্ছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে, একের পর এক মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। দেশে নতুন নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে। বিএনপির এগুলো ভালো লাগে না। এনামুল হক শামীম বলেন, আওয়ামীলীগ সরকারের নেতৃত্বে দেশের জনগণের টাকায় স্বপ্নের পদ্মাসেতু বাস্তবায়ন বিএনপির হিংসা হচ্ছে যা তাদের সহ্য হচ্ছেনা। তাই তারা নানা ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। মূলত দেশের ভাল হউক তারা তা চায় না। তারা মিথ্যা বলতে এবং সন্ত্রাস করতে অভ্যস্ত। এগুলো করে ক্ষমতায় আসা যায় না। ক্ষমতায় আসতে হলে জনগণের কাছে যেতে হয়। জনগণের রায় ছাড়া ক্ষমতায় আসা যায় না। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে জনগণের ভোটে ক্ষমতায় আসতে হবে। দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নান্নু মালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মহিলা বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য তাহমিনা খাতুন শিলু, সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির মোল্যা, সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার, সহ-সভাপতি এমএ কাইউম পাইক, আলী আকবর পাইক, জিতু মিয়া বেপারী, কোহিনূর সুলতানা দোলা, জেলার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক কাওসার আহমেদ তকি, থানার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান শাহজালাল মাল, যুবলীগের আহবায়ক খালেক খালাসী, যুগ্ম আহ্বায়ক রাসেল আহম্মেদ পলাশ, মহিলা লীগের সভাপতি আনোয়ারা বেগম, সাধারন সম্পাদক সালমা বেগম, যুব মহিলা লীগের সভাপতি রোকসানা চৌকিদার, সাধারন সম্পাদক ওয়াহিদা আক্তার প্রমুখ।