নির্বাচনের মাধ্যমেই ক্ষমতার পরিবর্তন হবে

প্রকাশিত : অক্টোবর ২৭, ২০২২ , ১০:২৭ অপরাহ্ণ

কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, সংগৃহীত চিত্র।

মধুপুর, টাঙ্গাইল, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, তারেক জিয়ার জেল হয়েছে, পালিয়ে লন্ডনে আছে। সেখানে বসে স্বপ্ন দেখছে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চুরি করেছে, তারও জেল হয়েছে, নির্বাচনে আর অংশগ্রহণ করতে পারবেন না; তিনিও স্বপ্ন দেখেন আন্দোলন করে সরকারের পতন ঘটিয়ে আবার প্রধানমন্ত্রী হবেন। তিনি বলেন, ‘আমি তারেক জিয়া- খালেদা জিয়াকে বলতে চাই, আন্দোলন করে, ষড়যন্ত্র করে, সামরিক বাহিনীর ছত্রছায়ায় আর কোনো দিন ক্ষমতায় আসতে পারবেন না। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতার পরিবর্তন হবে। ক্ষমতার উৎস জনগণ। কাজেই, ক্ষমতায় আসতে হলে জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আসতে হবে।’ বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইলের মধুপুরের জলছত্র মাঠে অরণখোলা ও বেরীবাইদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। সম্মেলনে মধুপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার শফি উদ্দিন মনি ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। এর আগে কৃষিমন্ত্রী কালিহাতি উপজেলায় কালিহাতি আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় বক্তৃতা করেন। এ সময় মন্ত্রী বলেন, একটানা ১৫ বছর ক্ষমতায় থেকে আওয়ামী লীগ দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করেছে৷ এর ফলে অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, অবকাঠামো, আইসিটিসহ সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে, যা বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হচ্ছে। কিন্ত দেশের মধ্যে বিএনপি এই উন্নয়ন দেখে না, দেখতে পায় না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের আরো ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই উন্নয়নকে আরো গতিময় করতে হবে, এগিয়ে নিতে হবে। বিএনপি, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি, কিছু সুশীল সমাজ, কিছু বুদ্ধিজীবী, কিছু মিডিয়া নানারকম ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চালাচ্ছে উল্লেখ করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, তারা এমনভাবে প্রচার করছে যেন দেশ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে, এখনই সরকারের পতন হবে, এখনি আরেকটি নতুন সরকার আসবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের শক্তি দেশের জনগণ। আওয়ামী লীগ এতটা জনসম্পৃক্ত দল যে, বিএনপি আন্দোলন সমাবেশ করে আর ধাক্কা দিয়ে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে সরাতে পারবে না। সভায় সংসদ সদস্য হাছান ইমাম খান ও তানভীর হাসান ছোটমনির-সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।