পঞ্চগড়ে বিএনপির গণ সমাবেশকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে পুলিশসহ অর্ধশতাধিক আহত

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ২৪, ২০২২ , ৭:৪২ অপরাহ্ণ

ডিজার হোসেন বাদশা, নিজস্ব প্রতিনিধি, পঞ্চগড়, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পঞ্চগড়ে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির গণ সমাবেশের মিছিলে পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশ ও বিএনপি সমর্থকসহ প্রায় অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে। এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুর ৩টায় পঞ্চগড় শহরে এই ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাটি শুরু হয়। যা প্রায় আড়াই ঘন্টা পর্যন্ত চলে। এর আগে দুপুর ৩টার সময় শহরের দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীরা উপস্থিত হতে গেলে পুলিশ তাদের বাঁধা দেয়। এতে দুই পক্ষের মাঝে ইট পাটকের ছোড়া ছুড়ি শুরু হলে পুলিশ এক পর্যায়ে রাবার বুলেট এবং টিয়ারসেল নিক্ষেপ শুরু হয়। এতে থমথমে পরিবেশ বিরাজ করে শহরজুড়ে। পঞ্চগড় জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. হাবিব আল আমিন কুদ্দুস জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আজ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে গণ মিছিলের আয়োজন করা হয়েছিল। মিছিলগুলো দলীয় কার্যালয়ের সামনে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ অতর্কিত হামলা চালায়। এতে আমাদের আব্দুর রশিদ আরেফিন নামে একজন কর্মী টিয়ারসেলের আঘাতে মৃত্যুবরণ করেছে। আব্দুর রশিদ আরেফিন জেলার বোদা উপজেলার বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক। এদিকে নিহতের ছোট ভাই আশরাফুল ইসলাম সবুজ বলেন, ভাই দুপুরে মোটরসাইকেলের চাবি নিয়ে শহরে আসেন। আমাদের কিছু বলেন নি। কিভাবে কি হয়েছে তা জানি না। এ বিষয়ে আমাদের কোন অভিযোগ নেই। তবে পঞ্চগড় পুলিশ সুপার এসএম সিরাজুল হুদা জানান, তারা মিছিলের নামে এলাকায় নাশকতার চেষ্টা করে। এতে পরিস্থিতি একটু খারাপ দেখে আমরা পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে মাঠে নামি। এর মাঝে তারা আমাদের উপর ইট-পাটকেলসহ অতর্কিত হামলা চালায়। এই ঘটনায় নিহতের ঘটনাটির কোন সম্পৃক্ততা নেই। নিহত ব্যক্তি আগে থেকে হার্টের সমস্যায় অসুস্থ ছিল। তাকে তার পরিবার হাসপাতালে ভর্তি করায়। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন কর্মীকে গ্রেফতার করা হয় নি। বিষয়টি তদন্ত শেষে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।