পেশাগত ব্যাধির তালিকা সংশোধন করা হবে

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২২, ২০২৩ , ৯:০৯ অপরাহ্ণ

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, প্রায় শতবছর পূর্বে শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ আইনের তফসিল ৩ এর অনুরূপ ২০০৬ সালের শ্রম আইনে পেশাগত ব্যাধির তালিকা সংশোধন করা হবে। তিনি বলেন, দেশে নতুন নতুন শিল্প কারখানা গড়ে উঠেছে, সেগুলোতে বিদ্যমান আপদ বিবেচনায় পেশাগত ব্যাধির হালনাগাদের প্রয়োজন দেখা দিয়েছে। প্রতিমন্ত্রী রবিবার রাজধানীর বিজয়নগরে শ্রম ভবনের সম্মেলন কক্ষে ‘জাতীয় শিল্প, স্বাস্থ্য ও সেইফটি কাউন্সিলের ১১তম সভায় সভাপতির বক্তৃতায় এসব জানান। প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি নীতিমালা ২০১৩ কে সংশোধন করা হবে। এজন্য যতদ্রুত সম্ভব স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, আইসিডিডিআরবি, বিভিন্ন বিভাগ ও অধিদপ্তরকে সংযুক্ত করে নীতিমালাটি যুগোপযোগী করার নির্দেশ প্রদান করেন তিনি। সভায় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি নীতিমালা সংশোধনে শ্রম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (শ্রম) কে আহ্বায়ক এবং উপ-মহাপরিদর্শক (সেইফটি)কে সদস্য সচিব করে একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হয়। এজন্য আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) কারিগরি সহায়তা প্রদান করবে। সভায় ইতোমধ্যে পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি বিষয়ক কনভেনশন আইএলও তে যে মৌলিক কনভেনশন হিসেবে গৃহীত হয়েছে, তার ওপর একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। সভায় মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ এহছানে এলাহী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক মোঃ নাসির উদ্দীন আহমেদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ রহিম খান, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. আশরাফ আহাম্মেদ, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব দেলোয়ারা বেগম, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তসলিমা কানিজ নাহিদা, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মিনা মাসুদ উজ্জামানসহ আইএলও, বিজিএমইএ এর প্রতিনিধি, মালিক প্রতিনিধি, শ্রমিক প্রতিনিধি, জাতীয় শিল্প, স্বাস্থ্য ও সেইফটি কাউন্সিলের সদস্যগণ অংশগ্রহণ করেন ।
সভায় পরে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর কর্তৃক প্রস্তুতকৃত পেশাগত সেইফটি ও স্বাস্থ্য বিষয়ক জাতীয় কর্মপরিকল্পনা (২০২১-২০৩০) এবং বাংলাদেশে পেশাগত সেইফটি ও স্বাস্থ্য বিষয়ক জাতীয় প্রোফাইল ২০১৯ এর (বাংলা অনুবাদ) মোড়ক উন্মোচন করা হয়।