আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে ইউরিয়া সার উৎপাদন নিরবচ্ছিন্ন রাখতে হবে

প্রকাশিত : মে ১৪, ২০২২ , ৭:০৫ অপরাহ্ণ

তারাকান্দি (জামালপুর), ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা বলেছেন, সারের আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে কৃষকদের নিকট যথাসময়ে পৌছে দেয়ার লক্ষ্যে ইউরিয়া সার উৎপাদন নিরবচ্ছিন্ন রাখতে হবে। কোনো অনিবার্য কারণ ছাড়া কারখানার উৎপাদন বন্ধ করা যাবে না। গ্যাসের চাপ কমজনিত কারনে সাম্প্রতিকসময়ে উৎপাদন বন্ধ করা প্রসংগে সচিব বলেন, গ্যাসের সমস্যা সমাধানকল্পে পেট্রোবাংলাসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা করে সমাধানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। শনিবার জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার তারাকান্দিতে যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিঃ পরিদর্শনকালে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে মতবিনিময় সভায় শিল্প সচিব এসব কথা বলেন। এসময় শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস আলম, জামালপুরের জেলা প্রশাসক মুর্শেদা জামান, যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকির হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। শিল্প সচিব বলেন, সার উৎপাদন ও মজুদের সঠিক হিসাব থাকতে হবে। উৎপাদনশীলতা বাড়াতে হবে। সারের উৎপাদন খরচ কমিয়ে আনতে হবে। শিল্প সচিব কারখানার জন্য প্রয়োজনীয় পানি ভূউপরিস্থ উৎস থেকে ব্যবহারের পরামর্শ দেন এবং ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবহার পরিহার করতে বলেন। এজন্য নিকটস্থ প্রাকৃতিক উৎস যমুনা নদী কাজে লাগাতে হবে।
শিল্প সচিব সার উৎপাদন কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করেন এবং বাল্ক গোডাউন, স্টোর ও অন্যান্য স্থাপনা ঘুরে দেখেন। তিনি কারখানার সামগ্রিক পরিবেশ উন্নয়ন করতে ডাম্পিং গ্রাউন্ড তৈরি, বিভিন্ন স্থাপনা রক্ষণাবেক্ষণ ও সংস্কারের বিষয়ে উদ্যোগ নিতে বলেন।
কারখানার স্টোর পরিদর্শন করে তিনি বলেন, ইনভেন্টরী ব্যবস্থাপনা আধুনিকীকরণ করতে হবে। বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানে তিনি পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সহযোগিতা নেয়ার কথা বলেন। উল্লেখ্য জাপানের আর্থিক সহায়তায় মোট ২০০ একর জায়গা নিয়ে যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড প্রতিষ্ঠা করা হয়। এর বার্ষিক উৎপাদন ক্ষমতা ইউরিয়া সার প্রায় ৫ লক্ষ ৬১ হাজার মেট্রিক টন এবং এমোনিয়া প্রায় ৩ লক্ষ ৫৬ হাজার মেট্রিক টন।