বঙ্গমাতা বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুকে সহযোগিতা করেছেন : প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা

প্রকাশিত : আগস্ট ৯, ২০২২ , ৫:৪৫ অপরাহ্ণ

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব ছিলেন জাতির পিতার সুযোগ্য সহধর্মিণী, সহকর্মী, সহযোদ্ধা ও জীবনের চালিকা শক্তি। তিনি বাঙালি জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতিটি পদক্ষেপে বঙ্গবন্ধুকে সক্রিয় সহযোগিতা করেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক, পারিবারিক, সামাজিক সংকটে-সংগ্রামে সার্বক্ষণিক সহযোগী ও অনুপ্রেরণাদাত্রী হয়ে নিভৃতে কাজ করে গেছেন। প্রতিমন্ত্রী সোমবার রাতে অনলাইনে বাংলাদেশ হাইকমিশন লন্ডন আয়োজিত মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মহীয়সী নারী বঙ্গমাতার দেশপ্রেম, রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, দুরদর্শিতা, সাহসিকতা, মহানুভবতা, উদারতা, মানবকল্যাণ ও ত্যাগের মহিমা বাঙালিসহ বিশ্বের সকল নারী ও নতুন প্রজন্মের মাঝে প্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে। ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা আরো বলেন, বঙ্গমাতা যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ গড়ার কাজে আত্মনিয়োগ করেন। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশে নারীদের কর্মসংস্থানসহ নারী উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের প্রকৃত পথ প্রদর্শক। তিনি নারীদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে দক্ষতা এবং সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর জন্মবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম বঙ্গমাতার সংগ্রামী জীবন, আত্মত্যাগ, সাহসিকতা, দেশপ্রেম, মহান মুক্তিযুদ্ধে তাঁর অপরিসীম অবদান এবং স্বাধীনতা সংগ্রামের অজানা অনেক তথ্য জানতে পারবে। যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরিফ ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুকসহ যুক্তরাজ্য ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশের আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব: এ ফিয়ারলেস কম্প্যানিয়ন ইন ক্রাইসিস এন্ড স্ট্রাগল’ শীর্ষক সেমিনারে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য সেন্ট্রাল ফ্যামিলি কোর্টের জাজ খাতুন স্বপ্না আরা, বাংলাদেশি লেখক ও কবি শামীম আজাদ ও ব্যারিস্টার সুলতানা তরফদার কিউসি। অনুষ্ঠানে প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশগ্রহণ করে।