বহুমুখী উৎসের মাধ্যমে নবায়ণযোগ্য জ্বালানির ব্যাপ্তি বাড়ানোর উদ্যোগ অব্যাহত রয়েছে

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১, ২০২২ , ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বহুমুখী উৎসের মাধ্যমে নবায়ণযোগ্য জ্বালানির ব্যাপ্তি বাড়ানোর উদ্যোগ অব্যাহত রয়েছে। সৌর, বায়ু, পানি, বা বর্জ্য নিয়ে গবেষণা চলছে। হাইড্রোজেন ফুয়েলও সরকারের পরিকল্পনায় রয়েছে। প্রতিমন্ত্রী বৃহস্পতিবার ঢাকায় সোনারগাঁও হোটেলে নারায়ণগঞ্জের জলকারি অঞ্চলে বর্জ্য থেকে ৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদানকালে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। প্রতিমন্ত্রী এ সময় বলেন, বৈশ্বিক পরিস্থিতির জন্য সারা বিশ্বেই জ্বালানির বাজারে অস্থিরতা বিদ্যমান। বিদ্যুৎ বিভাগ নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুতের দিকে যাচ্ছিল-এই যুদ্ধ তা বাধাগ্রস্ত করেছে। আগামী মাস বা তার পরের মাসে বিদ্যুৎ পরিস্থিতি আরো ভালো হবে। বিদ্যুৎচালিত যানবাহনের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইলেকট্রিক ভেহিক্যালের জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। সরকার চার্জিং গাইডলাইন তৈরি করে ফেলেছে। ইঞ্জিনের দক্ষতা বেশি হওয়ায় সাশ্রয়ীভাবে ইলেকট্রিক ভেহিক্যাল চালনা করা সম্ভব। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ নবায়ণযোগ্য জ্বালানির প্রসারকে উৎসাহিত করে। নবায়ণযোগ্য জ্বালানি থেকে বর্তমানে ৯১০ দশমিক ৮২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হলেও ৩২টি প্রকল্পের মাধ্যমে ১৪৪২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের প্রকল্প চলমান রয়েছে। এছাড়া ৭৬টি প্রকল্পের মাধ্যমে আরো ৪৬৩২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তিনি আরো বলেন, বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ শুধু আলোই দিবে না, নারায়ণগঞ্জ শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতেও সহযোগিতা করবে।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার এ প্রকল্পের বিদ্যুৎ ক্রয় চুক্তি, বাস্তবায়ন চুক্তি, বর্জ্য সরবরাহ চুক্তি ও ভূমি ব্যবহার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তিতে বিদ্যুৎ বিভাগের পক্ষে স্বাক্ষর করেন যুগ্মসচিব নিরোদ চন্দ্র মন্ডল। বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মোঃ হাবিবুর রহমান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ড. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও পিডিবি’র চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান বক্তব্য রাখেন।