নদী ভাঙনরোধে একনেকে প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় সখিপুরে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

প্রকাশিত : অক্টোবর ১১, ২০২২ , ১০:৩৬ অপরাহ্ণ

শরীয়তপুর, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: শরীয়তপুরের সখিপুরের চরভাগা, কাঁচিকাটা, উত্তর তারাবুনিয়া ও দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়নে পদ্মা নদী ভাঙনরোধে ৫৫২ কোটি ৪৮ লাখ ৭১ হাজার টাকার স্থায়ী প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (একনেক)। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছেন এই খবরে সখিপুরের হাজার হাজার নারীপুরুষ বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে ফেঁটে পড়ে। তাদের মধ্যে ঈদের আনন্দ বিরাজ করছে। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি’র প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে। তারা এলাকায় একজন আরেকজনকে মিষ্টিমূখ করাচ্ছে। এমনকি রঙ ছিটিয়েও উল্লাস করছে তারা। ষাটোর্ধ্ব ছলেমান গাজী ও সোনাব আলী বলেন, “হুনলাম প্রধানমন্ত্রী আজকে নদীভাঙন রক্ষার করার লাইগা বেঁড়িবাধ অনুমতি (অনুমোদন) দিছে। শেখ হাসিনারে ধন্যবাদ। আমাগো কি যায় নাই নদীতে, “বাপদাদার ভিটামাটি, কবর, মসজিদ কোনডাই বাকি নাই। এইবার হইবো, ইনশাআল্লাহ। কারণ, বঙ্গবঙ্গুর মেয়ে শেখ হাসিনা অনুমতি দিচ্ছে। সাড়ে ৫শ কোটি টাহার কাম। নড়িয়ার লাহান সোন্দর হইয়া যাইবো, নদীরপাড়া। প্রধানমন্ত্রীর লাইগা দোয়া করি। এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও চরভাগা ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্বা হাবিবুর রহমান সিকদার, কাঁচিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দেওয়ান, উত্তর তারাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস মোল্যা, দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শাহজালাল মাল বলেন, প্রায় ৫০ বছর যাবৎ আমরা পদ্মার ভয়াল ভাঙনের শিকার হচ্ছি। অনেকেই অনেক কিছু হারিয়েছি। এবার পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম এমপি’র ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একনেকে চরভাগা, কাঁচিকাটা, উত্তর তারাবুনিয়া ও দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়নে পদ্মা নদী ভাঙনরোধে ৫৫২ কোটি টাকা ৪৮ লাখ ৭১ হাজার টাকার স্থায়ী প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন। এজন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে ভেদরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সখিপুর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির মোল্যা বলেন, ৫০ বছরের দুঃখ এবার ঘুচাবে। পদ্মার ভাঙনের হাত থেকে সখিপুরের চার ইউনিয়নকে রক্ষার জন্য স্থায়ী প্রকল্প অনুমোদন করায় প্রথমেই বঙ্গবন্ধু’র সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আমাদের প্রিয় নেতা পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীমকে বিশেষ ধন্যবাদ। এ ব্যাপারে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন, অশেষ কৃতজ্ঞতা বঙ্গবন্ধু’র বীর কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আজ জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেক) সভায় শরীয়তপুরের সখিপুর থানার উত্তর তারাবুনিয়া থেকে চরমোহন পর্যন্ত নদীভাঙা রোধকল্পে ৫৫২ কোটি ৪৮ লক্ষ ৭১ হাজার টাকার স্থায়ী প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন একনেক সভাপতি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। এ প্রকল্পটির কারনে শরীয়তপুরের নড়িয়ার মতো নদীভাঙনের হাত থেকে রক্ষা পাবে সখিপুরের মানুষ। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা শরীয়তপুরকে নদীভাঙনের হাত থেকে রক্ষা করে সবদিক দিয়ে উন্নত সমৃদ্ধ জেলায় পরিণত করে যাচ্ছেন। মাদার অফ হিউম্যানিটি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা-এর প্রতি আমরা শরীয়তপুরবাসী চিরঋণী।