খুলনা টেক্সটাইল মিলের জমিতে পিপিপির আওতায় লাভজনক বিনিয়োগে করণীয় বিষয়ক কর্মশালা

প্রকাশিত : অক্টোবর ১৩, ২০২২ , ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙা এলাকায় খুলনা টেক্সটাইল মিলস এর ২৫ একর জমিতে পিপিপির আওতায় লাভজনক বিনিয়োগের জন্য কি ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করা যায় তার ওপর অংশীজনদের পরামর্শ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার খুলনা মহানগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান। কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, খুলনা মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় খুলনা টেক্সটাইল মিলস এর জায়গায় পরিবেশ রক্ষা করে বিভিন্ন সেক্টরের জন্য দক্ষ জনশক্তি তৈরির লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক মানের বৃহৎ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং টেক্সটাইল পল্লী তৈরির উদ্যোগ বিবেচনায় নেওয়া যায়। প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা ছাড়া কোনো বিকল্প রাস্তা নেই। তিনি বলেন, পরিবেশকে সুরক্ষা করে আমাদের প্রকৃতিক অঞ্চলগুলোতে পর্য়টকদের আকৃষ্ট করতে দেখার মতো করতে হবে। কোনো প্রতিষ্ঠানকে লাভজনক করতে ইতিবাচক মানসিকতার প্রয়োজন। খুলনা মহানগরীর প্রাণ কেন্দ্রে এই গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় এ অঞ্চল তথা গোটা দেশের মানুষের উপকারে আসে, মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয় এ ধরনের বিনিয়োগে এগিয়ে আসার জন্য উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। এছাড়া আলোচকগণ পিপিপি’র আওতায় ট্রেনিং সেন্টার, ইকোপার্ক, এমিউজমেন্ট পার্ক, মেডিক্যাল কলেজ, পরিকল্পিত আবাসন প্রকল্প গ্রহণ এবং এ গুরুত্বপূর্ণ জায়গাটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে ইকোলজি এবং ইকোনমির বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়েছেন। খুলনা অঞ্চলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এ জায়গার বিষয়ে করণীয় নির্ধারণে এ কর্মশালায় সংসদ সদস্য নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, সংসদ সদস্য গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার, খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মোঃ জিল্লুর রহমান চৌধুরী, বিটিএমসির চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ জাকির হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ অথরিটি (পিপিপিএ) এর মহাপরিচালক প্রণব কুমার ঘোষ, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ) এর চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসএম মেরাজুল ইসলাম, পিপিপিএ এর পিপিপি বিশেষজ্ঞ মহাপরিচালক মোঃআবুল বাশার এবং বিটিএমসির প্রকল্প পরিচালক কাজী ফিরোজ হোসেনসহ খুলনা এবং জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন খাতের শতাধিক বিনিয়োগকারী/উদ্যোক্তা, বিশেষজ্ঞ শিক্ষাবিদ অংশগ্রহণ করেন।