উন্নয়ন সম্প্রীতি আর শান্তির জন্য শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নাই

প্রকাশিত : অক্টোবর ১৪, ২০২২ , ১০:১২ অপরাহ্ণ

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেছেন, পার্বত্য জেলার উন্নয়ন মানে শেখ হাসিনা, দেশের উন্নয়ন মানে শেখ হাসিনা। আগামী দিনগুলোতেও বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য, সম্প্রীতির জন্য, শান্তির জন্য শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নাই। বৃহস্পতিবার বান্দরবান জেলা শহরের রাজার মাঠে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বান্দরবান জেলা শাখার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী এসব কথা বলেন। মন্ত্রী ছাত্রদের উদ্দেশে বলেন, সরকারের শিক্ষা থেকে শুরু করে সকল উন্নয়নমূলক কাজ তৃণমূল পর্যায়ে তুলে ধরার জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে সক্রিয়ভাবে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, নতুন নেতৃত্বকে দলীয় কর্মীসহ শিক্ষার্থীদের সুখে-দুঃখে পাশে দাঁড়ানো এবং তরুণ প্রজন্মের মাঝে ছাত্রলীগের নীতি-আদর্শ ছড়িয়ে দিতে হবে।এ সময় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ছাত্রদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী। মন্ত্রী আরো বলেন, পার্বত্য তিন জেলায় সব ধর্মের মানুষ মিলেমিশে বসবাস করছে। পার্বত্য জেলা হলো সম্প্রীতির জেলা। দু’শ বছর ব্রিটিশের শাসন, তেইশ বছর পাকিস্তানের শাসন আর ৫০ বছর হলো বাংলাদেশের শাসন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের আমলে যে উন্নয়ন হয়েছে, ২৩০ বছরের মধ্যে কোনো সরকারের আমলে এতো উন্নয়ন হয় নাই। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকার, বার বার দরকার- এটা স্লোগান নয়, এটা বাস্তব। বান্দরবানের রাজার মাঠে বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। এর আগে জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন, বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের সূচনা করেন অতিথিবৃন্দ। বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাউছার সোহাগের সভাপতিত্বে ও জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জনি সুশিল এর সঞ্চালনায় সন্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা রবিন বাহাদুর, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্যশৈহ্লা, সহ-সভাপতি আবদুর রহিম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ, মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সাংগঠনিক সম্পাদক অজিত কান্তি দাশ, চৌধুরী প্রকাশ বড়ুয়া, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ কাউছার সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক জনি সুশীল।