সরকারের উন্নয়ন কাজ সফলভাবে বাস্তবায়ন করাই হলো দেশপ্রেম

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৬, ২০২২ , ১০:০১ অপরাহ্ণ

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, প্রত্যেকের সেবা করার মানসিকতা থাকতে হবে। সহমর্মিতার সাথে দেশের উন্নয়নে নিজেদের মাঝে সেতুবন্ধন গড়ে তুলতে হবে। সরকারের উন্নয়ন কাজ সফলভাবে বাস্তবায়ন করাই হলো সত্যিকারের দেশপ্রেম। সোমবার ঢাকার সার্কিট হাউজ রোডে তথ্য ভবন অডিটোরিয়ামে নরসিংদী ফোরাম, ঢাকা আয়োজিত সম্মাননা স্মারক প্রদান ও প্রীতি সম্মেলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোসাম্মৎ হামিদা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ফরিদ আহাম্মদ, তথ্য অধিদফতরের প্রধান তথ্য অফিসার শাহেনুর মিয়া, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মানজারুল মান্নান, শ্রম ও জনশক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোর্শেদা আক্তার। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুগ্মসচিব মো. আবুল ফজল মীর। মন্ত্রী বলেন, তাঁত শিল্পকে আধুনিকীকরণ করা প্রয়োজন। নরসিংদীর মাধবদী ও শেখের চর তাঁত শিল্পের জন্য বিখ্যাত। তিনি বুনন তাঁত শিল্পের ঐতিহ্যকে টিকিয়ে রাখতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান। সভাপতির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব হামিদা বেগম বলেন, পরস্পরের জানা বুঝার মাধ্যমে টেকসই, সামাজিক ও পারস্পরিক যোগাযোগ অব্যাহত রাখা যায়। তিনি বলেন, সামগ্রিক উন্নয়ন ও কল্যাণকর কাজে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। দেশে-বিদেশে বুনন শিল্পের ঐতিহ্য তুলে ধরতে নরসিংদীতে একটি বুনন শিল্প জাদুঘর-এর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে জানান পার্বত্য সচিব। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি রক্ষার্থে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে নরসিংদীতে শহিদদের গণকবরগুলো সংরক্ষণ করার জন্য মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন তিনি। প্রধান তথ্য অফিসার শাহেনুর মিয়া বলেন, ৫ হাজার বছরের পুরনো ঐতিহ্য জনপদ নরসিংদী। শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতিতে নরসিংদী এগিয়ে রয়েছে। আমাদের দরকার হলো, নিজেদের মধ্যে একতা ও স্বতঃস্ফূর্ততা। অনুষ্ঠানে ১০ জনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। স্মারক পদকপ্রাপ্তরা হলেন- প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ফরিদ আহাম্মদ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মানজারুল মান্নান, ঢাকা জেলা প্রশাসক (যুগ্মসচিব) মোঃ শহিদুল ইসলাম, শ্রম ও জনশক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোর্শেদা আক্তার, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব জাকির হোসেন, বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব এস এম জাকারিয়া, ঢাকা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ মিনহাজুল ইসলাম, পুলিশ সুপার এ.কে.এম. এমরান ভূঁইয়া, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, বিপিএম ও পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম।
পরে মন্ত্রী এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।