প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় অর্থনীতির আঙ্গিনায় অসীম সাহসী ও দূরদর্শিতার প্রতীক

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১২, ২০২২ , ১১:২৮ অপরাহ্ণ

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে আর্থসামাজিক খাতে বাংলাদেশের বিস্ময়কর উত্থান ও অগ্রযাত্রা এখন সারা বিশ্বে স্বীকৃত। প্রধানমন্ত্রী জাতীয় অর্থনীতির আঙ্গিনায় অসীম সাহসী ও দূরদর্শিতার প্রতীক। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঠিক দিক নির্দেশনায় দেশকে এগিয়ে নিতে রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীসহ দেশপ্রেমিক সকলকে সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ সোমবার বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় সভাপতির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বরিশালের সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ্, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একে এম জাহাঙ্গীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মোঃ ইউনুছ ও শাহ আলম এম পি। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবিসংবাদিত নেতৃত্বে বাঙালি জাতি অর্জন করে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। তিনি বলেন, দলীয় নেতা-কর্মীদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, স্বাধীনতা সংগ্রাম, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সরকারের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা নতুন প্রজন্মসহ বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে হবে। তিনি বলেন, দেশের অব্যাহত উন্নয়ন, শান্তি-শৃঙ্খলা, নিরাপত্তা ও প্রগতির ধারাকে বাধাগ্রস্ত করতে দেশবিরোধী চক্র দেশ-বিদেশে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি এসব ষড়যন্ত্রকারীদের রুখে দিতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যা-মামলা, যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধসহ চাঞ্চল্যকর অন্যান্য মামলার রায় প্রদানের মাধ্যমে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। উন্নত বাংলাদেশ গড়তে ৪র্থ শিল্পবিপ্লব কাজে লাগাতে হবে। নতুন প্রজন্মকে দ্রুত পরিবর্তশীল বিশ্বের সাথে খাপ খাওয়াতে শিক্ষা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হচ্ছে। তিনি সংগঠনের কার্যক্রম আরো গণমুখী ও বরিশালবাসীর সার্বিক জীবনমান উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সকলকে ত্যাগের মনোভাব নিয়ে স্ব স্ব দায়িত্ব পালনের পরামর্শ দেন। তিনি বরিশালে আসন্ন শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনে নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান। সভায় বরিশাল জেলা, মহানগর, উপজেলা এবং পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ, বিভিন্ন পৌরসভার মেয়রগণ, উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানবৃন্দসহ জেলা ও মহানগরের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।