শ্রমিক কল্যাণ তহবিল থেকে ২ হাজার ৮৩৬ শ্রমিককে ১৭ কোটি ৬৮ লাখ টাকা সহায়তা দেয়া হবে

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১৩, ২০২২ , ১১:১৯ অপরাহ্ণ

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল থেকে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের ২ হাজার ৮৩৬ জন শ্রমিক এবং শ্রমিক পরিবারের সদস্যদের নিয়মিত সহায়তা হিসেবে ১৭ কোটি ৬৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হবে। মঙ্গলবার সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের ২৬তম বোর্ড সভায় এ সহায়তার অনুমোদন দেয়া হয়।
সভায় দূরারোগ্য ব্যাধিতে মৃত এবং বিভিন্ন দুর্ঘটনায় নিহত ১১৪ জন শ্রমিকের পরিবারকে ১ কোটি ২১ লাখ ২৫ হাজার টাকা, দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত এবং বিভিন্ন দুর্ঘটনায় আহত ২ হাজার ৫৭৮ জন শ্রমিক চিকিৎসার জন্য ১৫ কোটি ৭৮ লাখ ৪৫ হাজার টাকা, শ্রমিকের মেধাবী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষায় ৯৭ জনকে শিক্ষা সহায়তা হিসেবে ৪৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হবে। এছাড়া ৪৭ জন শ্রমিকের মৃত্যুজনিত এবং চিকিৎসার জন্য জরুরি সহায়তা হিসেবে ২৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে বোর্ড সভায় সেটারও অনুমোদন দেয়া হয়। সভাপতির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী অসহায় শ্রমিকদের কল্যাণে বছরান্তে লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ দশমিক ৫ শতাংশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে প্রদানের জন্য কোম্পানি মালিকদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে। এজন্য মালিকদের সাথে যোগাযোগ বাড়াতে হবে। বিভিন্ন কোম্পানির মালিকগণ যাতে এ তহবিলে লভ্যাংশ প্রদান করেন তার জন্য শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনকে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এ পর্যন্ত এ তহবিলে ৩০৬টি কোম্পানি তাদের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ নিয়মিত জমা দিচ্ছে। বর্তমানে এ তহবিলে স্থিতির পরিমাণ প্রায় ৮০২ কোটি টাকা। মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ এহছানে এলাহী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মিনা মাসুদুজ্জামান, বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. মোল্লা জালাল উদ্দিন, অর্থ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কবিরুল ইজদানী খান, শ্রম মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মহিদুর রহমান, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব সুব্রত শিকদার, শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মোঃ সালাউদ্দিন, শ্রম অধিদপ্তরের পরিচালক বেলাল হোসেন শেখ, বাংলাদেশ এমপ্লেয়ার্স ফেডারেশনের মহাসচিব ফারুখ আহমেদ, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, মহিলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী রহিমা আক্তার সাথী সভায় অংশগ্রহণ করেন।