যে সমাজ জ্ঞানী গুণিজনের কদর করে না সে সমাজে জ্ঞানী গুণিজনের সৃষ্টি হয় না

প্রকাশিত : জানুয়ারি ১৪, ২০২৩ , ১১:২৬ অপরাহ্ণ

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্, সংগৃহীত চিত্র।

বরিশাল, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ বলেছেন, যে সমাজ জ্ঞানী- গুণিজনের কদর করে না, সে সমাজে জ্ঞানী- গুণিজনের সৃষ্টি হয় না। সমাজ সচেতন মানুষের সম্মিলিত মেধা, মনন ও কর্ম-প্রয়াস একটি সুখী, সমৃদ্ধ ও আত্মনির্ভরশীল সমাজ বির্নিমাণের সহায়ক শক্তি। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ শনিবার বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার সেরালে স্থানীয় গুণিজন ও সমাজ সংগঠকদের সাথে এলাকার সার্বিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংবিধানের আলোকে নাগরিকদের সামাজিক সুরক্ষা বিধানের ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করেছিলেন। তাঁর হাত ধরে যে সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিল সেটি এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশেষ কর্মযজ্ঞে রূপান্তরিত হয়েছে। তিনি বলেন,সরকারের সমাজসেবা অধিদপ্তরের ২০২২-২৩ অর্থ বছরে উপকারভোগীর সংখ্যা ৪৯ লাখ হতে ৫৭ দশমিক শূন্য ১ লাখে উন্নীত করেছে। অবহেলিত জনপদের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে সমন্বিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সুষম উন্নয়ননীতিতে দেশব্যাপী শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, বনায়ন, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ ও অবকাঠামোখাতে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করেছে। তিনি বরিশালবাসীর জীবনমান উন্নয়ন ও স্বচ্ছলতা আনয়নে সরকারের পাশাপাশি সমাজসেবামূলক সংগঠনগুলোকে আরো সক্রিয় ভূমিকা রাখার পরামর্শ দেন। এ ব্যাপারে তিনি সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দেন।