সরকারী প্রতিষ্ঠান কমিটির ৭ম বৈঠক অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত : জুলাই ৮, ২০২৪ , ৭:২১ অপরাহ্ণ

আশিষ চৌধুরী, বিশেষ প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: দ্বাদশ জাতীয় সংসদের ‘সরকারী প্রতিষ্ঠান কমিটি’র ৭ম বৈঠক সোমবার (৮ জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ) সকাল ১১টায় কমিটির সভাপতি মোঃ আবুল কালাম আজাদ এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, আলাউদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, নুরুজ্জামান আহমেদ, মোঃ সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, আনোয়ারুল আশরাফ খান এবং নাজমা আক্তার বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। বৈঠকে বাংলাদেশ জুট মিলস কর্পোরেশন (বিজেএমসি) এর সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিতকরণ; বিজেএমসি-এর বার্ষিক রিপোর্টের বিষয়ে আলোচনা; বিজেএমসি-এর উপর সিএজি কর্তৃক প্রণীত ও সংসদে পেশকৃত অডিট রিপোর্টের অনিষ্পন্ন অডিট আপত্তির বিষয়ে পর্যালোচনা; বিজেএমসি-এর ইউনিটসমূহের বিগত পাঁচ বছরের একীভূত স্থিতিপত্র, আয়-ব্যয় হিসাব ও লাভ-লোকসান হিসাব এবং উক্ত হিসাবের বিষয়ে কোন বিশেষ প্রবণতা থাকলে সে বিষয়ে আলোচনা; বিজেএমসি-এর প্রধান কার্যালয়ের সর্বশেষ হিসাব (আর্থিক ও কনফিডেনশিয়াল ম্যানেজমেন্টের রিপোর্ট); অধিকতর দক্ষ ও লাভজনকভাবে বিজেএমসি পরিচালনার বিষয়ে গৃহীত কর্মপরিকল্পনা, কর্মদক্ষতা, উন্নয়ন ও মিতব্যয়িতা নিশ্চিতকরণের বিষয়সমূহ পর্যালোচনাসহ ৬ষ্ঠ বৈঠকের কার্যবিবরণী নিশ্চিতকরণ করা হয়। বৈঠকে বিজেএমসির মালিকানাধীণ যে সকল মিলস লিজ দেয়া হয়েছে সেগুলো লাভজনক কিনা, সম্পদটি সিকিউরিটাইজ করে বন্ড, শেয়ার বিক্রির মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করে সরকারের কোন লাভজনক কাজে ব্যবহার কিংবা বিজেএমসির কোন শিল্প কারখানা আধুনিকায়ণ করার কাজে লাগানো যায় কিনা তা একটি বিশেষজ্ঞ টিমের মাধ্যমে পরীক্ষা করার প্রয়োজনীয় পদেক্ষপ গ্রহণের জন্য কমিটি কর্তৃক সংশ্লিষ্টদের সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত হওয়া বিজেএমসির যে তিনটি মিলস এখনো লিজ প্রদান করা হয়নি সেগুলোকে ইকোনোমিক জোন কিংবা হাইটেক পার্কে প্রতিস্থাপন করা যায় কিনা তা নিরূপণে একটি বিশেষজ্ঞ টিমের মাধ্যমে ৩-৬ মাসের মধ্যে প্রতিবেদন তৈরিপূর্বক সরকারের নিকট প্রেরণের জন্য কমিটি কর্তৃক মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে বিজেএমসির বিগত পাঁচ বছরের একীভূত স্থিতিপত্র, আয়-ব্যয় হিসাব ও লাভ-লোকসান হিসাব এবং সর্বশেষ হিসাব আর্থিক ও কনফিডেনশিয়াল ম্যানেজমেন্টের উপর সিএজি এর কার্যালয় হতে যে সকল মতামত দেয়া হয়েছে তা বিশ্লেষণ করে সুনির্দিষ্ট জবাব প্রদানের জন্য মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে বিজেএমসি’র উপর সিএজি কর্তৃক প্রণীত এবং সংসদে পেশকৃত অডিট রির্পোটের অডিট আপত্তির বিষয় আলোচনা করে কয়েকটি অডিট আপত্তি নিষ্পত্তি করা হয় এবং অবশিষ্ট অডিট আপত্তিসমূহ ৯০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করার জন্য কমিটি কর্তৃক সংশ্লিষ্টদের সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কালরাত্রিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ শহীদ পরিবারের সকল সদস্যবৃন্দ, মুক্তিযুদ্ধের ত্রিশ লক্ষ শহীদ, সম্ভ্রম হারানো ২ লক্ষ মা-বোন, জাতীয় চার নেতা এবং ভাষা আন্দোলনে সকল শহীদদের রূহের মাগফেরাত কামনা করে তাঁদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিজেএমসির চেয়ারম্যান, বিভিন্ন সংস্থা প্রধানগণসহ বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

[wps_visitor_counter]