ঝুঁকিপূর্ণ বেগমগঞ্জ উপজেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিস

প্রকাশিত : জুন ১৮, ২০২২ , ৬:০৬ অপরাহ্ণ

ইয়াকুব নবী ইমন, নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিসের কার্যক্রম চলছে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে। দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ভবনটি। ভবনটির ছাদের ইট, সুরকি, পলেস্তারা ধসে পড়ে প্রায় সময় আহত হচ্ছেন অনেকে। প্রতিদিন শত শত মানুষ আতঙ্ক নিয়েই ঝুঁকিপূর্ণ এই ভবনে তাদেও রেজিস্ট্রি কার্যক্রম সম্পন্ন করছেন। যে কোন সময় ভবনটি ধ্বসে পড়ে ঘটতে পারে প্রাণ হানির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। আতঙ্কের মধ্যেই অফিস করছেন কর্মকর্তা, কর্মচারী, নকল নবিসরা। আতঙ্কে থাকেন দলিল লেখক ও সেবা প্রত্যাশী সাধারণ মানুষও। সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, সাধারণ মানুষের জমি ক্রয়-বিক্রয়ের সুবিধার্থে ও রাজস্ব আদায়ের লক্ষে সরকার ১৯৮৩ সালে বেগমগঞ্জ সাব- রেজিস্ট্রি অফিস ভবনটি নির্মাণ করে। দীর্ঘদিন উক্ত ভবনটি সংস্কার না করায় অনেকটা জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। প্রতি নিয়ত ভবনের বিভিন্ন অংশ ধ্বসে পড়ছে। প্রায় সময় ঘটছে দুর্ঘটনা। ভবনের পাশে অংশ, উপরের ছাদের পলেস্তারা ধসে পড়ায় সামান্য বৃষ্টিতেই ভবনের ভেতর পানি ডুকে যায়। এতে সাধারণ মানুষের গুরুত্বপূর্ণ দলিল বৃষ্টির পানিতে ভিজে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ঝুঁকিপূর্ণ ভবনেই প্রতিদিন ভূমি রেজিস্ট্রি কার্যক্রম চলে। ভবনটি ধ্বসে পড়ে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ উল্লেখ করে স্থানীয় সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ কিরনের ডিও লেটার দিলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছেনা। ফলে আতঙ্ক আর প্রাণ হানির আশঙ্কা নিয়েই কাজ করছেন অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, নকল নবিস, দলিল লেখকসহ সাধারণ মানুষ। অফিসের নকল নবিস নুর মোহাম্মদ মনুসহ অনেকেই জানান, আমরা যে রুমে কাজ করি সেই রুমটি অনেকটাই ঝুঁকিপূর্ণ। প্রায় সময় আমাদের মাথার উপর ইটের টুকরো, সুরকি ও পলেস্তারা খসে পড়ে। অনেকে আহত হয়েছেন। যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।’ বেগমগঞ্জ সাব- রেজিস্ট্রি অফিস দলীল লেখক ও স্ট্যাম্প ভেন্ডার সমিতির সভাপতি শামছুদ্দিন জানান, প্রতিদিন এখান থেকে কোটি কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়। অথচ আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয়। দ্রæত নতুন সাব রেজিস্ট্রি অফিস ভবন নির্মাণের দাবী জানাচ্ছি। বেগমগঞ্জ সাব রেজিস্টার মো: আমজাদ হোসেন জানান, আমি নিজেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছি। আমি শুনেছি স্থানীয় এমপি সাহেব নাকি ডিও লেটার দিয়েছেন। তদন্তও করা হয়েছে। কিন্তু এখনো দৃশ্যমান কোন কাজ আমরা দেখছিনা। সরকারের রাজস্ব আদায় নির্বিঘ্নে করতে দ্রুত নতুন ভবন করা উচিৎ বলে তিনি মনে করেন। শনিবার সকালে মোবাইলে নোয়াখালী জেলা রেজিস্টার মো: আবদুল খালেক জানান, বেগমগঞ্জ সাব রেজিস্ট্রি অফিস ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ। আমাদের লোকজন ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন। বিষয়টি জানিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয়া হয়েছে। গণপূর্ত বিভাগ থেকে অর্থ বরাদ্ধের জন্য চিঠিও দেয়া হয়েছে। আশা করি সরকার দ্রুত পদক্ষেপ নেবে।