মৌলভীবাজারে সাবেক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এর বিরুদ্ধে মানববন্ধন

প্রকাশিত : আগস্ট ৪, ২০২২ , ৯:৩৩ অপরাহ্ণ

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:মৌলভীবাজারে সাবেক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফারুক আহমদ এর বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) সকালে কাজিরগাঁও “আফিয়া ভিলার” কেয়ারটেকার মোঃ হেলাল এর সভাপতিত্বে আয়োজিত ২ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন। “আফিয়া ভিলার” ভাড়াটিয়া ভুক্তভোগী সুমন মিয়া, এখলাছ মিয়া, প্রতিবেশী সমাজসেবক মুহিবুর রহমান মুহিব, শাহানা বেগম, জুয়েল আহমদ, ফারজানা আক্তার, সালমা আক্তার প্রমুখ। কাজিরগাঁও এলাকাবাসীর সর্বস্তরের জনগণ কর্তৃক আয়োজিত মানববন্ধনে প্রায় শতাধিক লোকজন অংশ গ্রহণ করেন। বক্তারা বলেন- সাবেক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফারুক আহমদ ক্ষমতার অপ ব্যবহার করে বাসার প্রায় ৩০জন ভাড়াটিয়ার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়ের করেন। এখানে অনেক দিন মজুর, নারী ও কিশোর রয়েছে। তাকে দ্রুত বাসাবাড়ি হইতে অপসারণ-ক্রমে প্রয়োজনীয় পাওনা আদায় ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবী জানান। মানববন্ধন চলাকালে সাবেক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফারুক আহমদ একটি তরল পানিয় জাতীয় বোতল হাতে নিয়ে উপস্থিত মানববন্ধনে অংশগ্রহণ কারীদের এসিড দিয়ে পুরিয়ে মারার হুমকি প্রদান করেন বলে অভিযোগ উঠে। স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়- আফিয়া ভিলাস্থ বাসার মালিক মোঃ হারুনুর রশীদ যুক্তরাজ্যে প্রবাসী। মৌলভীবাজারে সাবেক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফারুক আহমদ অস্থায়ী উচ্ছেদশীল ভাড়াটিয়া হিসাবে বাসা বাড়ীতে পরিবার-পরিজন সহ বাসা ভাড়া নিতে চাহিলে ২য় পক্ষ সুলতানপুরস্থিত “আফিয়া ভিলা” এর ভাড়াটিয়া হিসাবে অক্টোবর-২০১৯ইং হইতে মাসিক ভাড়া মং-১৪,০০০/- (চৌদ্দ হাজার) টাকা সাব্যস্থক্রমে ভাড়া গ্রহণ করেন। ভাড়া গ্রহণ-কালীন সময়ে তিনি মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হিসাবে কর্মরত ছিলেন। একই বাসায় আরও ২৮টি পরিবার ভাড়াটিয়া হিসাবে রয়েছে। অন্যান্য ভাড়াটিয়াগণ এর সাথে ঝগড়া ও বিবাদ করায় এ বিষয়ে নিরসনের জন্য মৌখিকভাবে আবেদন করেন। বিগত ১৮/০৫/২০২১ইং তারিখে প্রার্থীর মালিক ও অন্যান্য লোকজনসহ আলোচনা জিজ্ঞাসাবাদ করায় মালিক হারুনুর রশিদের প্রতি রাগান্বিত হন। পূর্বের অবস্থায় আচরণ করিতে থাকিলে বিগত ১৯/১১/২০২১ইং তারিখে বলেন- জীবনে উক্ত ভাড়া বাসা ছাড়িবেন না। তাহার ইচ্ছামত চলাফেরা করিবেন। যদি কোন প্রকার বাধা-আপত্তি করেন তবে মামলায় জড়িত করিয়া মালিককে লন্ডন যাওয়া বাতিল করিবেন এবং মালিকসহ দরখাস্তকারীকে চৌদ্দ-শিকলের মধ্যে রাখিয়া আজীবন জেলের ভাত খাওয়াইবেন। গত ২ আগস্ট ভুক্তভোগীর সুলতানপুর পয়েন্টে অবস্থিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করেন ও জীবননাশের হুমকি প্রদান করেন। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার সদর থানায় জি.ডি করা হয়েছে। তিনি গত ১০ মাস যাবত বাসার ভাড়া পরিশোধ করিতেছেন না। ভাড়া পরিশোধ না করে শ্রীমঙ্গল সহকারী জজ আদালত মৌলভীবাজারে স্বত্ব ৫৪০/২০২১ মামলা দায়ের করিলে বিজ্ঞ আদালত তা না মঞ্জুর করেন। এ ব্যাপারে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে স্বত্ব ৯৩/২০২১ মামলা দায়ের করলে সেখানেও তিনি হেরে যান। বর্তমানে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছেন। বাসা ছাড়ছেন না এবং বাসার ভাড়াও প্রদান করছেন না।