সন্তান হত্যার দায়ে মায়ের ১০ বছরের কারাদন্ড

প্রকাশিত : অক্টোবর ২৬, ২০২২ , ৫:৩৬ অপরাহ্ণ

প্রতিকি চিত্র।

ডিজার হোসেন বাদশা, নিজস্ব প্রতিনিধি, পঞ্চগড়, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: পঞ্চগড়ে নিজ ৮ মাসের কোলের সন্তানকে হত্যার দায়ে হামিদা আক্তার (২৭) নামের এক নারীকে ১০ বছরের কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে পঞ্চগড় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আনিছুর রহমান এ দণ্ডাদেশ দেন। একই সাথে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও এক বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত আসামী হামিদা পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার দোহসুও এলাকার হাসান আলীর মেয়ে। পারিবারিক কলহে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়ার পর থেকে বাবার বাড়িতে থাকতেন তিনি। এর আগে গত ২০১৭ সালের ১৩ এপ্রিল ৮ মাস বয়সী শিশু সন্তান ইমরান আলীকে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগে আটোয়ারী থানায় শিশুটির চাচা মজনু মিয়া একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলায় দীর্ঘ শুনানি ও স্বাক্ষ্য প্রমাণ শেষে হত্যার সত্যতা পেয়ে ১০ বছরের কারাদন্ড রায় দেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক।
আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) ও রাষ্ট্র-পক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদী মজনু মিয়ার বাড়ি তেঁতুলিয়া উপজেলার লতিফগছ এলাকায়। তার ছোট ভাই আতারুল ইসলামের সঙ্গে যখন হামিদার বিচ্ছেদ ঘটে তখন শিশু সন্তান ইমরানের বয়স ৮ মাস। আইন অনুযায়ী শিশুটি মায়ের কাছে থাকে। মা হামিদা শিশুটিকে নিয়ে আটোয়ারী উপজেলার দোহসুও গ্রামে বাবার বাড়িতে যায়। বিচ্ছেদের পর সেখানে অবস্থানের মাত্র ৪ দিনের মাথায় হত্যা করা হয় ইমরানকে। এদিকে আসামী পক্ষের আইনজীবী আকবর আলী বলেন, আমরা এর সুষ্ঠু রায় পেতে উচ্চ আদালতে আপিল করবো।