অর্থনীতি সচল আছে বলেই প্রধানমন্ত্রী ৫০টি শিল্প ইউনিট উদ্বোধন করতে পেরেছেন

প্রকাশিত : নভেম্বর ২০, ২০২২ , ৭:৫৫ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ নতুন ৫০টি শিল্প ইউনিট উদ্বোধন এবং ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন। এটা একটা ভালো খবর। আলোচকদের কথা অনুযায়ী অর্থনীতির দুরবস্থা, বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যর্থতা, এনবিআর এর জটিলতার মধ্যেও ৫০টি নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠান কীভাবে বাংলাদেশে হচ্ছে? কথার সাথে বাস্তবতার অনেক ফারাক দেখতে পাচ্ছি এবং এটার মূল কারণটা হচ্ছে রাজনীতি। আমাদের দুর্ভাগ্য হচ্ছে চলমান বাস্তবতার মধ্যেও আমরা বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষের ভাগ্য নিয়ে রাজনৈতিক খেলায় অবতীর্ণ হয়েছি। এটা আমাদের জন্য চরম দুর্ভাগ্য। এসব বিষয়ে বর্তমান সরকার সতর্ক আছেন। গতকাল প্রধানমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি সম্পর্কে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। বাংলাদেশ তথা গ্রামীণ অর্থনীতি এখনো ভালো আছে, চাঙ্গা আছে। প্রতিমন্ত্রী রবিবার ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে দৈনিক ইত্তেফাক আয়োজিত ‘বাংলাদেশের শিপিং খাত: বাস্তবতা ও করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, তিন বছর আগে বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশ কোভিড আক্রান্ত হয়েছে। তখন কী সময়টা ছিল! তখন কিন্তু সকলেই বসে গিয়েছিল। শুধু সচল ছিল সরকার এবং সরকারের সেই পদক্ষেপের কারণেই কিন্তু বাংলাদেশের অর্থনীতি বেঁচে গেছে শুধু নয়; বাংলাদেশের মানুষও বেঁচে গেছে। আমাদের ভুলত্রুটি থাকতে পারে; বিভিন্ন কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা হতে পারে। সরকারের আন্তরিকতা নিয়ে ঘাটতি নাই। দুর্ভাগ্য এটাই- দেশকে তলানিতে ঠেলে দেয়ার জন্য কিছু মানুষ রাজনীতি করছে। ‘গতকাল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, দেশকে তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করা হয়েছে’- এ বিষয়টি উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, যদি তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত হয়, তাহলে কি আমরা আলোচনায় বসতাম। সুযোগই ছিল না। এই যে, অসংলগ্ন কথাবার্তা বলে দেশের মানুষকে আতঙ্কিত করার অধিকার নাই। আমাদের রিজার্ভ আছে। এখন সচল হয়েছে। কেনা কাটা হচ্ছে। রিজার্ভ কিছুটা কমছে। এর মানে এই নয়; দেশের অর্থনীতি দুর্বল হয়ে গেছে। দেশের অর্থনীতি সচল আছে বলেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ ৫০টি শিল্প ও অবকাঠামো উদ্বোধন এবং ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে পেরেছেন। অনুষ্ঠানে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট এসোসিয়েশেনের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ ইকবাল আলী শিমুল। দৈনিক ইত্তেফাকের সাব-এডিটর মোঃ মইনুল ইসলামের উপস্থাপনায় এবং বিশেষ প্রতিনিধি সাইদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ শাহজাহান (ভার্চুয়ালি), বাংলাদেশ ইনল্যান্ড কন্টেইনার ডিপো এসোসিয়েশেনের সভাপতি নূরুল কাইয়ুম খান, বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ আইনুল ইসলাম, বিকেএমইএ’র নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, বাংলাদেশ ফ্রেইট ফরওয়ার্ডস এসোসিয়েশেনের সভাপতি কবির আহমেদ, গ্লোবাল টিভির সিইও এবং এডিটর ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা।