রমজান উপলক্ষ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য আমদানিতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ১৫, ২০২২ , ১:০৬ পূর্বাহ্ণ

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, সংগৃহীত চিত্র।

রংপুর, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য আমদানিতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এলসি জিরো মার্জিন অথবা ন্যূনতম মার্জিন করা হয়েছে। পরবর্তীতে নিয়ম অনুযায়ী ৬ মাস পর সেই পণ্যের বকেয়া পরিশোধ করতে পারবেন। এলসি ওপেনের কারণে অন্য ব্যবসায়ীদের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। মন্ত্রী বুধবার রংপুর ডায়াবেটিক সমিতির উন্নয়নমূলক কাজ পরিদনর্শন করে সমিতির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভায় যোগ দিতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, দেশে আমদানি নির্ভর পণ্য ডাল, তেল, চিনি এগুলোর দাম কিছুটা বেড়েছে। কারণ বিশ্ববাজারে এসব পণ্যের দাম বেশি। তবে দেশে কৃষিজাত পণ্যের দাম কম রয়েছে। আগামী দু’তিন মাস এমন পরিস্থিতি থাকতে পারে। দেশের মানুষের ক্রয় ক্ষমতার সীমাবদ্ধতা রয়েছে। তাই যতদিন পর্যন্ত প্রয়োজন ততদিন টিসিবি’র মাধ্যমে এক কোটি পরিবারকে ভর্তুকি মূল্যে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য দেয়া হবে। মন্ত্রী আরো বলেন, আমদানির ক্ষেত্রে বাজারের অবস্থা বিবেচনা করে ডলার সরবরাহ করা হচ্ছে। তবে রেমিট্যান্সের টাকা কম দেয়া হচ্ছে না। তিনি বলেন, ডলারের দাম বাড়ার কারণে আমদানি পণ্যের দাম বেড়েছে। সে হিসেবে ডলারের মূল্য ধরে পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করা হচ্ছে। তাই অন্যান্য দেশের তুলনায় আমাদের দেশে মুদ্রাস্ফীতি কম রয়েছে। আমদানি ব্যয় কমাতে প্রধানমন্ত্রী আমাদের সাশ্রয়ী হতে বলেছেন। বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করে দেশের শতকরা ৪০ ভাগ বিদ্যুৎ খরচ কম হয়েছে। বর্তমানে আমদানি ও রপ্তানি সূচকের মধ্যে পার্থক্য কমে এসেছে। বিলাসবহুল পণ্য আমদানি কমিয়ে ডলার সাশ্রয় করা হচ্ছে। দেশের চলমান রাজনীতি সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি আন্দোলন করবে এটা তাদের অধিকার। তবে সবচেয়ে বড় কথা হলো নির্বাচন হচ্ছে গণতন্ত্রের শেষ কথা। রাজপথে থেকে কেউ কাউকে ক্ষমতা থেকে উঠিয়ে দেবে, এটা সম্ভব নয়। আগামী নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ করা উচিত। পরে মন্ত্রী ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণ কর্যক্রম পরিদর্শন করেন এবং পীরগাছা উজেলায় তাম্বুলপুর ইউনিয়নে তাফসির মাহফিলে যোগদান করেন।