সাম্প্রদায়িক বিভাজনের বিরুদ্ধে সাংস্কৃতিক আন্দোলন জোরদার করতে হবে

প্রকাশিত : জুলাই ৩০, ২০২২ , ৫:৪৪ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: দেশের সাম্প্রদায়িক বিভাজনের বিরুদ্ধে সাংস্কৃতিক আন্দোলনকে জোরদার করতে হবে। এ কাজে রাজনৈতিক কর্মীদের পাশাপাশি সাংস্কৃতিক কর্মীদের সচেতন-সংগঠিত করতে হবে। প্রয়াত ফকির আলগমীর বেঁচে থাকলে সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে তার দরাজ কণ্ঠ সোচ্চারিত হতো। ফকির আলমগীর জীবৎকালে তিনি মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে মাঠে ময়দানে গণসংগীত পরিবেশন করেছেন। বর্তমান সময়ে প্রয়াত ফকির আলমগীর এর মতো একজন গুণী শিল্পীর খুবই প্রয়োজন ছিল। মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতা নির্মূল করতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। শনিবার (৩০ জুলাই ২০২২) সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের মৌলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ হলে প্রয়াত গণসংগীত ফকির আলমগীরের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে সাবেক বিপ্লবী ছাত্র ইউনিয়নের আয়োজনে এক আলোচনা সভায় ভার্চুয়ালে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথি জননেতা কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি এ অভিমত ব্যক্ত করেন। উল্লেখ্য ফকির আলমগীর বিপ্লবী ছাত্র ইউনিয়নের নেতা ছিলেন। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ বিপ্লবী ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের বকুল। সভা সঞ্চালনা করেন সাবেক ছাত্রনেতা ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির ঢাকা মহানগর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড আবুল হোসাইন। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন ছাত্রনেতা প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম নোমান, এটিএম নাসির মিয়া, মো: মোজাম্মেল হক ফিরোজ, মোতালেব হাওলাদার, রাজু আহমেদ, জেমি হাফিজ, সেলিম মুজাহিদ, মোস্তফা আলমগীর রতন, বিশিষ্ট সাংবাদিক এলাহি নেওয়াজ খান, মাহাবুব আলম, জামাল উদ্দিন, মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, সাজ্জাদ খান তপু, বিশিষ্ট আইনজীবী গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী আলাল, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মুজতবা আহমেদ মোরশেদ, সঙ্গীত শিল্পী মো: শাহিন আহমেদ প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তির।