বাঙালি জাতির মুক্তির সংগ্রামে বঙ্গমাতার অবদান অসামান্য: শ্রম প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত : আগস্ট ৮, ২০২২ , ৯:২৯ অপরাহ্ণ

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, সংগৃহীত চিত্র।

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন:শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, বাঙালি জাতির মুক্তির সংগ্রামে বঙ্গমাতার অবদান অসামান্য। জাতির পিতা শেখ মুজিবের বঙ্গবন্ধু হয়ে উঠার জন্য সবচেয়ে বেশি ত্যাগ বঙ্গমাতার।
‘জাতির রক্তে প্রেরণার শিখা জননী, বঙ্গমাতা মমতাময়ী আজ দীপালোকে তোমার আসন পাতা’ এ চেতনাকে সামনে রেখে সোমবার সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী মহিয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ জাতির মুক্তি এবং এ দেশের স্বাধীনতার জন্য বঙ্গবন্ধুর যে সংগ্রাম, সেই সংগ্রামের সহযোদ্ধা ছিলেন বঙ্গমাতা। সবসময় তিনি বঙ্গবন্ধুকে সাহস যুগিয়েছেন। দেশ ও দেশের মানুষের জন্য বঙ্গমাতার যে আত্মত্যাগ, দেশের মানুষ তার খুব কমই জানতে পেরেছে। সেজন্য শ্রম প্রতিমন্ত্রী বঙ্গমাতার জীবনী নিয়ে গবেষণার আহ্বান জানান। এতে বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের অবদান সম্পর্কে অজানা অনেক কিছু জানা যাবে। অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ এহছানে এলাহী, শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোঃ ফারুক, নিম্নতম মজুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ শাহেনুর, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. সেলিনা আকতার, মাসুদ করিম, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক মোঃ নাসির উদ্দীন আহমেদ, শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খালেদ মামুন চৌধুরী, কেন্দ্রীয় তহবিলের মহাপরিচালক ড. মোল্লা জালাল উদ্দীনসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ অংশগ্রহণ করেন। আলোচনা শেষে বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে শ্রম মন্ত্রণালয় এবং এর অধীন দপ্তর অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মারীগণ বনানী কবরস্থানে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।