বাজার সিন্ডিকেট ভাঙতে যুব জনতার ঐক্য প্রয়োজন

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২২ , ৭:১৫ অপরাহ্ণ

ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর কেন্দ্রীয় কমিটি ও জাতীয় পরিষদ সভা শুক্রবার সকাল ১০টায় তোপখানাস্থ শিশু কল্যাণ পরিষদে সংগঠনের সভাপতি সাব্বাহ আলী খান কলিন্সের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বর্তমান রাজনীতি ও সংগঠন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। সভায় উপস্থিত নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের মানুষ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধিতে সাধারণ মানুষের জীবন অতিবাহিত করাই কষ্টসাধ্য হয়ে পরেছে। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বাজারে সিন্ডিকেট করে খাদ্যদ্রব্যের মূল্য বাড়িয়ে সাধারণ মানুষকে প্রায় অভুক্ত রাখছে। নেতৃবৃন্দ মনে করেন, সরকারি ছত্রছায়ায় সিন্ডিকেট সক্রিয়। এই সিন্ডিকেট ভাঙতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আন্তরিকতা ও জনগণের ঐক্য বিশেষভাবে প্রয়োজন। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী জামাত-শিবির-হেফাজত বিভিন্ন নামধারী সাম্প্রদায়িক শক্তি বিএনপি থেকে একটু দূরে অবস্থান করলেও এটা সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দেওয়ার কৌশল মাত্র। জাতীয় পরিষদ সভায় নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, বর্তমান সরকার কেবলমাত্র উন্নয়নের কথা বলে, বেকার যুবদের কর্মসংস্থান, নাগরিক জীবনের বেঁচে থাকার জন্য নিত্য-পণ্য ন্যায্যমূল্যে ক্রয় করার উদ্যোগ নিতে না পারায় সাধারণ মানুষ চরমভাবে হতাশ করছে। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুতাসিম বিল্লাহ সানীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, তৌহিদুর রহমান, তাইজুল ইসলাম রোম, আব্দুল আহাদ মিনার, মনিরুজ্জামান পান্না, মনিরুজ্জামান মনির, অনুপ কুমার পিন্টু, তাপস দাস, ফারহাইন বালী, কাজী মাহমুদুল হক সেনা, পারভেজ আলম বাচ্চু, শফিকুল ইসলাম মুকুল, কালাম খান, মামুন মোল্লা, মিজানুর রহমান মিজান, মোঃ সেলিম, শফিকুল ইসলাম শফিক, রেজোয়ানা রাজাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। জাতীয় পরিষদ সভায় বক্তব্য রাখেন শামীম ইমতিয়াজ সুমন, মতিউর রহমান মতি, রাসেল আহমেদ, মাহাবুদ রানা তরুণ, ওমর ফারুক সুমন, আবদুল কুদ্দুস, খোকন, রুমেল, মামুন প্রমুখ। জাতীয় পরিষদ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মুতাসিম বিল্লাহ সানীকে বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক থেকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় আগামী ৯-১০ ডিসেম্বর ২০২২ ৮ম জাতীয় সম্মেলনের দিন ধার্য করা হয়। জাতীয় পরিষদ সভায় ঢাকা মহানগর উত্তর, দক্ষিণ, খুলনা, রাজশাহী মহানগর, রাজশাহী জেলা, নড়াইল, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, কুমিল্লা, চাপাইনবাবগঞ্জ, পাবনা, ময়মনসিংহ, গাজীপুর, চট্টগ্রাম, বরিশাল, ঝালকাঠী, সিলেট, বান্দরবন, রংপুর, ফরিদপুর, বগুড়া, রাজবাড়ী, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, কক্সবাজার, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়সহ ৪৫-এর অধিক জেলার প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত থেকে বক্তব্য প্রদান করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তির।