মানিকগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নবজাতকের বিশেষায়িত সেবা কেন্দ্রের উদ্বোধন

প্রকাশিত : আগস্ট ১৩, ২০২২ , ১০:৪২ অপরাহ্ণ

মানিকগঞ্জ, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: শনিবার মানিকগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নবজাতকের বিশেষায়িত সেবা কেন্দ্র (স্ক্যানু) উদ্বোধন করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। ইউএসএআইডি’র ‘মামনি’ মাতৃ ও নবজাতক স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়ন প্রকল্প (মামনি এমএনসিএসপি)-এর সহযোগিতায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় মানিকগঞ্জের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নবজাতকের বিশেষায়িত সেবা কেন্দ্র (স্ক্যানু) চালু হয়েছে। বাংলাদেশে প্রতি বছর অনুমানিক ৯০ হাজার নবজাতক মৃত্যুবরণ করে এবং দুই তৃতীয়াংশের বেশি শিশু জন্মের সাত দিনের মধ্যে মৃত্যুবরণ করে। এর মধ্যে অর্ধেক শিশু সংক্রমণ, জন্মকালীন শ্বাসরুদ্ধতা, কম জন্ম ওজন এবং অপরিণত জন্মের কারণে জন্ম নেয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মৃত্যুবরণ করে। অথচ মানসম্মত নবজাতকের বিশেষায়িত সেবায় এই অপ্রত্যাশিত মৃত্যুগুলোর বেশিরভাগই প্রতিরোধ করা সম্ভব। মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নবজাতকের বিশেষায়িত সেবা কেন্দ্র উদ্বোধন এই অঞ্চলের অসুস্থ নবজাতকের স্বাস্থ্য সেবার ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জাহিদ মালেক বলেন, আগস্ট মাস শোকের মাস। কিন্তু সেই সাথে আজকে আমাদের জন্য আনন্দের দিন। আমরা শোককে শক্তিতে রূপান্তর করতে চাই। এই মাসে আমরা বসে থাকবো না। আমরা ইউএসএআইডি ও সেভ দ্য চিলড্রেন-এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আশা করছি তারা তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। আমরা ৫০ জেলায় স্ক্যানু স্থাপন করেছি, বাকি জেলায় করবো। নবজাতকের পাশাপাশি মায়েদের বিষয়ে নজর বাড়াতে হবে। স্ক্যানু গুরুতর অসুস্থ নবজাতকের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এটা নবজাতকদের জন্য আইসিইউ। স্ক্যানুতে নবজাতকেরা তাৎক্ষণিক সেবা পায় এবং জীবন রক্ষা পায়। গর্ভবতী মায়েদের প্রাতিষ্ঠানিক প্রসব বা ইনস্টিটিউশনাল ডেলিভারি বাড়ানোর ওপর মন্ত্রী গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া তিনি বলেন, সময়মতো আমরা কোভিড-১৯ এর টিকা শুরু করতে পেরেছি। এটি আজ আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের নামে এই স্ক্যানুর নামকরণের প্রস্তাবনা করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। মানিকগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমের সভাপত্বিতে নবজাতকের বিশেষায়িত সেবা সম্পর্কিত একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির।