সীমান্ত সড়ক প্রকল্প পরিদর্শন করলেন সেনাবাহিনী প্রধান

প্রকাশিত : আগস্ট ২১, ২০২২ , ৯:০২ অপরাহ্ণ

ঢাকা, ব্রডকাস্টিং নিউজ কর্পোরেশন: সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, এসবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি, পিএইচডি রবিবার (২১-০৮-২০২২) পার্বত্য চট্টগ্রামের সীমান্ত সড়ক প্রকল্প পরিদর্শন করেন। পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সীমান্ত সড়ক (রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা) নির্মাণ (১ম পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্পের পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে সীমান্ত সড়ক প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। একইদিনে সেনাবাহিনী প্রধান পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন আর্মি ক্যাম্প এবং কক্সবাজার জেলায় সেনাবাহিনীর বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প পরিদর্শন করেন। সীমান্ত সড়ক নির্মাণ প্রকল্প এর বাস্তবায়ন-কাল জুন ২০১৮ হতে জুন ২০২৪ পর্যন্ত। প্রকল্পটি রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি এবং বান্দরবান এই তিন পার্বত্য জেলায় চলমান রয়েছে, যার সম্পূর্ণ দৈর্ঘ্য ১০৩৬ কিলোমিটার। প্রকল্পটি ২টি পর্যায়ে সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে, এর মধ্যে ১ম পর্যায়ের ৩১৭ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের কাজ ৭টি সেগমেন্টে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। প্রকল্পটির ১ম পর্যায়ের কাজ শেষে ২য় পর্যায় সম্পন্ন করা হবে। প্রকল্পটির নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হলে পার্বত্য জেলাসমূহের সীমান্ত বরাবর নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি সাধন, সীমান্তের দুই পাশের অবৈধ ব্যবসা (অবৈধ অস্ত্র, মাদক, মানব পাচার ইত্যাদি) বন্ধ, পার্শ্ববর্তী দেশের সাথে সড়ক যোগাযোগের মাধ্যমে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতে ব্যবসা ও বাণিজ্যের প্রসার এবং সীমান্ত এলাকার কৃষি পণ্য দেশের মূল ভূখণ্ডে পরিবহনের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নতিতে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি পার্বত্য জেলাসমূহের মধ্যে আন্তঃ আঞ্চলিক সংযোগ স্থাপন হবে যা নিরাপত্তা কার্যক্রম ও শান্তি রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।
পরিদর্শন-কালে চীফ কনসালটেন্ট জেনারেল, এডহক সিএসসি, মেজর জেনারেল এফ এম জাহিদ হোসেন, এএফডব্লিউসি, পিএসসি; জিওসি ১০ পদাতিক ডিভিশন মেজর জেনারেল মোঃ ফখরুল আহসান, বিএসপি, এনডিইউ, পিএসসি; জিওসি ২৪ পদাতিক ডিভিশন, মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম, বিপি, ওএসপি, এনডিসি, পিএসসি; সেনাসদর এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের ঊর্ধ্বতন সেনা ও বিজিবি কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।